সিবিএন ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম বিবিসি’র সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, মার্কিন সেনারা ভবিষ্যতে আবার আফগানিস্তানে ফিরে যাবে।

‘কারণ, সন্ত্রাসের হুমকি এতটাই বড় হয়ে দেখা দেবে যে, আমাদেরকে আবার ফিরে যেতেই হবে,’ বলেন লিন্ডসে গ্রাহাম।

আফগানিস্তানে প্রায় দুই দশকের দীর্ঘ সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধের পর গত ৩১ আগস্ট সেখান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার শেষ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু শেষ মার্কিন সেনাটি আফগানিস্তান ছাড়ার আগেই রাজধানী কাবুলের দখল চলে যায় তালেবানের হাতে।

কাবুলের পতন হলেও আফগানিস্তানে সংঘাত এখনও চলছে। দেশটির পাঞ্জশির প্রদেশের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ক্রমাগতই পাল্টাপাল্টি দাবি করে যাচ্ছে তালেবান এবং তাদের প্রতিপক্ষ এনআরএফ বিদ্রোহীরা।

পাঞ্জশিরের লড়াই ঘিরে আফগানিস্তানে ভবিষ্যতে গৃহযুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টির আশঙ্কা এরই মধ্যে প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলি।

আর গৃহযুদ্ধ শুরু হলে সেখানে আবার আল কায়েদা এবং আইএসের মতো জঙ্গি গোষ্ঠীগুলো মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে বলেও সতর্ক করেছেন মিলি।

এই জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোসহ ওই অঞ্চলে অন্যান্য আরও সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর জন্ম ও বিস্তার ঘটলে যুক্তরাষ্ট্র আবারও এদের হামলার হুমকির মুখে অনিরাপদ হয়ে উঠবে।

তালেবান অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে চুক্তিতে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, আফগানিস্তানের মাটিকে বিদেশে হামলার জন্য ব্যবহার হতে না দেওয়ার। কিন্তু তারা তাদের প্রতিশ্রুতি কতটা রক্ষা করতে পারবে তা নিয়ে সংশয় আছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •