মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া:

কক্সবাজার জেলার পেকুয়া থানা পুলিশের উপর হামলা ও মগনামা ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিমের ছোট ভাই এনায়েত উল্লাহ চৌধুরীকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় থানায় দায়েরকৃত পৃথক দুইটি জিআর মামলার আসামী মোজাম্মেলকে গতকাল ১ সেপ্টেম্বর রাঙামাটি সদর এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পেকুয়া থানার একটি চৌকস টিম। পরে গ্রেফতারকৃত মোজাম্মেলকে চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে কক্সবাজার জেলা কারাগারে প্রেরণ করেছে পেকুয়া থানা পুলিশ। এরপর আজ ২ সেপ্টেম্বর মোজাম্মেলকে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর রাঙামাটি জেলা কমান্ড্যান্ট কার্যালয় থেকে এক আদেশ জারি করে চাকুরী হইতে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। আনসার সদস্য মোজাম্মেল মগনামা ইউনিয়নের নুন্যার পাড়া গ্রামের আহমদ কবির প্রকাশ পোড়া বদর পুত্র। গত দুই বছর ধরে মোজাম্মেল অঙ্গীভূত আনসার সদস্য হিসেবে পার্বত্য রাঙামাটি জেলা সদরে অবস্থিত জনতা ব্যাংক লিমিটেড এর নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করে আসছিল। চাকুরীকালীন সময়ে গত এক বছর ধরে ফেসবুক লাইভে এসে ও বিভিন্ন স্ট্যাটাসের মাধ্যমে মগনামার চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ ওয়াসিমসহ বিভিন্ন জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল মাধ্যমে কুরুচিপূর্ণ ভাষা ব্যবহার করে অপপ্রচার চালিয়ে আসছিল।

জানা যায়, গত ১ সেপ্টেম্বর পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কানন সরকারের নেতৃত্বে এসআই নাদির শাহ্ ও সঙ্গীয় ফোর্স গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে পার্বত্য রাঙ্গামাটি জেলা সদরের জনতা ব্যাংক এলাকা থেকে আনসার সদস্য মোজাম্মেলকে গ্রেফতার সক্ষম হয।

জানা গেছে, গত ২৪ আগস্ট সকালে মগনামার চেয়ারম্যানের ভাই এনায়তসহ দুইজনকে কুপিয়ে জখম, একই দিন দুপুরে মগনামা মুহুরী গ্রামে পুলিশের ওপর হামলা ঘটনায় দায়ের করা পৃথক দুইটি জিআর মামলার আসামি ছিল মোজাম্মেল।

পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) কানন সরকার আনসার সদস্য মোজাম্মেলকে রাঙামাটি থেকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর রাঙামাটি জেলার সহকারী জেলা কমান্ড্যান্ট ও জেলা কমান্ড্যান্ট (চলতি দায়িত্ব) মোঃ আব্দুল মোন্তাকিম জানান, মামলায় গ্রেফতার মোজাম্মেল অঙ্গীভূত আনসার সদস্য হিসেবে রাঙামাটি জনতা ব্যাংকে চাকুরীরত ছিল। পেকুয়া থানার দুইটি মামলায় পুলিশ মোজাম্মেলকে গ্রেফতার করেছে। তিনি আরো জানান, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর বিধিমতে তাকে চাকুরী হইতে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। যদি আদালত থেকে নির্দোষ প্রমাণিত হয় মোজাম্মেল চাকুরী ফিরে পাবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •