কফিল উদ্দিন, রামু:

রামুর জোয়ারিনালা ইউনিয়নের মুরাপাড়া এলাকায় পুকুরের পানিতে ডুবে দুই মাদ্রাসা ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। তাদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.নোবেল কুমার বড়ুয়া।

তারা পুর্বমুরা পাড়া এলাকার সিরাজুল ইসলামের পুত্র জিয়া (০৬) ও একই এলাকার ডেকোরেশন ব্যবসায়ী ছুরুত আলমের পুত্র জনি(০৫)।

স্থানীয় বাসিন্দা রাশেদ কামাল জানান, আমরা মসজিদের পাশে একটি ঘর নির্মানের কাজ করতেছিলাম, কাজের বিরতির অংশ হিসাবে সকাল আনুমানিক ১০.৩০ মিনিটের দিকে নাস্তা করার জন্য দোকানের দিকে রওনা দিলে, আমরা তাদের দুজনকে পুকুরে ভাসমান অবস্থান দেহি,আমরা তাদের তৎক্ষণাৎ উদ্ধার করে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসা তাদের মৃত ঘোষনা করেন।

জানা যায়, তারা দুইজন বেশ ভাল বন্ধু। সকাল থেকে পুর্ব মুরাপাড়া জামে মসজিদের মাঠে দীর্ঘক্ষণ খেলাধুলা করেছেন। খেলার এক পর্যায়ে ওই মসজিদের পুকুরে তারা মসজিদের গোসল করতে গেলে দুর্ঘটনাবশত: পানিতে ডুবে মৃত্যু হয় বলে স্থানীয়রা ধারনা করেন।

তাছাড়া সিরাজুল ইসলামের ১ ছেলে ও ২ মেয়েট মধ্যে নিহত জিয়া (০৬) ২ নং সন্তান। তাদের পরিবারে একটি মাত্র ছেলে সন্তান ছিল জিয়া। অপরদিকে ডেকোরেশন ব্যবসায়ী ছুরুত আলমের ও ১ ছেলে ২ মেয়ে। তাদের পরিবারেও একটি মাত্র ছেলে সন্তান নিহত জনি(০৫)।

একটি দুর্ঘটনা দুইটি পরিবারের আশা ভরসার যেন নিমিষেই শেষ করে দিল। এদিকে এই ছোট্ট দুই বন্ধুর মৃত্যুতে জোয়ারিয়ানালার পুর্ব মুরাপাড়া এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া বিরাজ করছে।

এদিকে রামু থানা পুলিশের পুলিশ উপ পরিদর্শক আজাদের নেতৃত্বে একটি দল ও জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কামাল শামসুউদ্দিন আহমদ প্রিন্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বলে স্থানীয়রা জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •