মুহাম্মদ মনজুর আলম,চকরিয়া :

‘বেশী বেশী মাছ চাষ করি বেকারত্ব দূর করি’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে চকরিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েছে। চকরিয়া উপজেলা মৎস্য দপ্তরের উদ্যোগে শনিবার বেলা ১১টার সময় উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়।

সভায় উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. বেনজির আহমেদ বলেন, মৎস্যচাষে বিপ্লব ঘটাতে বিভিন্ন পদ্বতি অবলম্বন ও জনসাধারণকে সচেতন করার পাশাপাশি উন্নত ও দেশীয় প্রজাতির মাছ চাষে উদ্বুদ্ধ করে যাচ্ছে সরকার । ইতিমধ্যে সীমিত জায়গায় বায়োফ্লক্স পদ্ধতিতে মাছ চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এ পদ্বতি অবলম্বন করে অল্প পুঁজিতে মাছ চাষ করা হলে বেকারত্ব মোছনে সহায়ক হবে।

তিনি আরো বলেন, চকরিয়ার উপকূলীয় এলাকায় ৭ হাজার একর চিংড়ি ঘের রয়েছে। এসব ঘেরে বাগদা চিংড়ির পরিবর্তে চাষ করা যায় এমন নতুন এক প্রজাতি চিংড়ি মাছ ‘ভেনামি’ পরীক্ষামূলকভাবে চাষ হচ্ছে। এটি সফল হলে অধিক উৎপাদনশীল এই চিংড়ি মাছ চাষে বৈদেশিক মুদ্রার পাশপাশি চাষীরা আর্থিক লাভবান হবে।

আরো বলেন, চকরিয়া উপজেলার মাটি ও পানি মৎস্য চাষের জন্য বেশী উপযোগী। এখানে তিন ধরনের পানি রয়েছে। লবণাক্ত পানি, হালকা লবণাক্ত পানি ও মিঠা পানি। এমন পানি বাংলাদেশের কোথাও পাওয়া যায়না। এ সুযোগকে কাজে লাগানো গেলে চকরিয়ায় মাছ চাষে বিপ্লব ঘটানো সম্ভব হবে। মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা মেরিন ফিসারিজ অফিসার এ জেড এম মোছাদ্দেকুল ইসলাম ও এফ এ মো. সায়েফ উল্লাহ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •