কক্সবাজার জেলা আ’লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় তৃণমূলে সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করতে হবে: হুইপ স্বপন এমপি

প্রকাশ: ২৮ আগস্ট, ২০২১ ০৯:১৯ , আপডেট: ২৮ আগস্ট, ২০২১ ০৯:২৪

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


বার্তা পরিবেশক :

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন মেঘা প্রকল্প সমূহের সফল বাস্তবায়ন, বিশ্বের দরবারে উজ্জ্বল ভাবমূর্তি, তাঁর প্রতি দেশের মানুষের আস্থা ও ভালবাসা দেখে বিএনপিসহ সকল সাম্প্রদায়িক অপশক্তি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে পড়েছে। এ ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে হলে সংগঠনকে আরো অনেক বেশি শক্তিশালী করতে হবে। সংগঠনের প্রতিটি স্তরে নেতাকর্মীদের সজাগ থেকে যে কোন ষড়যন্ত্রের দাঁত ভাঙ্গা জবাব দিতে হবে। সবাইকে সকল ভেদাবেদের উর্ধ্বে উঠে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সিনিয়র নেতাদের চরিত্র হননের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না।

শনিবার দুপুরে শহরের লালদীঘির পাড়স্থ দলীয় কার্যালয়ে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমানের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠিত সভায় কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক হুঁশিয়ারী দিয়ে আরো বলেন, বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়া এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যারা দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এসব অপপ্রচারের বিষয়ে প্রয়োজনে কেন্দ্রিয় টিম গঠন করে তদন্ত করা হবে। আওয়ামী লীগের ঐক্য বিনষ্ট করার জন্য বিএনপি-জামায়াত টাকা-পয়সার বিনিময়ে বিভিন্ন জায়গায় এজেন্ট নিয়োগ করেছেন। তাদেরকে চিহ্নিত করতে হবে। সংগঠনকে শক্তিশালী করতে ঐক্যের কোন বিকল্প নেই। ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে কোন আপশক্তি পরাজিত করতে পারে না।

তিনি শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিষয়ে অত্যন্ত কঠোর মনোভাব পোষণ করেন। তৃণমূল থেকে শুরু করে কেন্দ্র পর্যন্ত সকল স্তরের নেতাকর্মীদের তিনি গণমানুষের কল্যাণে কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন। জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনে সংগঠনের প্রতি নৌকা নিয়ে নির্বাচিত সকল স্তরের জনপ্রতিনিধিদের নিষ্ঠার সহিত দায়িত্ব পালন করতে হবে।
তিনি বলেন, আগামী সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম তারিখ থেকে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ের সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু হবে। এ বিষয়ে তিনি নিন্মুক্ত সিদ্ধান্ত প্রদান করেন।

(১) সেপ্টেম্বর-২০২১ইং এর মধ্যে সকল উপজেলায় জেলা নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে বর্ধিত সভা হবে। সভায় জেলা নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি জাতীয় সংসদ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।

(২) সেপ্টেম্বরের মধ্যে জেলার সকল ইউনিয়নে উপজেলা নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে বর্ধিত সভা হবে। স্থানীয় সংসদ সদস্য ও দলীয় প্রতীকে নির্বাচিত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানবৃন্দ সভায় উপস্থিত থাকবেন।

(৩) আগামী ৭ দিনের মধ্যে বিভিন্ন উপজেলার জন্য জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক টিম গঠন করা হবে।

(৪) আগামী ৯ অক্টোবর কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিনিধি সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সকল কর্মকর্তা ও সদস্য, উপজেলা আওয়ামী লীগের সকল সদস্য, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত সকল জনপ্রতিনিধি, সহযোগী সংগঠন সমূহের জেলা ও উপজেলা সভাপতি/সাধারণ সম্পাদকগণ অংশ গ্রহণ করবেন। সভায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এড. সিরাজুল মোস্তফা বলেন, দলের স্বার্থে সকল দ্বিধাদ্বন্ধ ভুলে গিয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারের প্রতি সুদৃষ্টি দিয়ে কক্সবাজারে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। এ সব প্রকল্পে ইতিমধ্যে হাজার হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে। তিনি কক্সবাজারকে প্রাচ্যের পর্যটন রাজধানী হিসেবে গড়ে তুলার মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী সৎ উদ্দেশ্য নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, মেঘা প্রকল্প গুলো বাস্তবায়ন হলে দেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাবে। এসব প্রকল্প যাতে কোন ভাবে বাধাগ্রস্থ না হয় সে বিষয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। তিনি স্থানীয় ও জাতীয় নির্বাচনে দলীয় ভাবে মনোনীত প্রার্থীদেরকে বিজয় সুনিশ্চিত করার আহবান জানান।

বিশেষ বর্ধিত সভায় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, সালাহ উদ্দিন আহমদ সিআইপি, অধ্যাপিকা এথিন রাখাইন, রেজাউল করিম, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি. সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, লেঃ কর্ণেল (অবঃ) ফোরকান আহমদ, মাহাফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, কানিজ ফাতেমা আহমদ এমপি, মাহবুবুল হক মুকুল, এড. রনজিত দাশ, মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, আবদুর রহমান বদি, শফিউল আলম চৌধুরী, কায়সারুল হক জুয়েল, রহিম উদ্দিন, হামিদা তাহের, জহিরুল ইসলাম সিকদার, সোহেল আহমদ বাহাদুর, তাহমিনা চৌধুরী লুনা, এস.এম. সাদ্দাম হোসেন, আজিজুর রহমান চৌধুরী বক্তব্য রাখেন।

এতে জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এম. আজিজুর রহমান, এড. বদিউল আলম সিকদার, জাফর আলম চৌধুরী, নাজনীন সরওয়ার কাবেরী, এড. আব্বাস উদ্দিন চৌধুরী, খোরশেদ আলম কুতুবী, এড. আয়াছুর রহমান, ইউনুছ বাঙ্গালী, এড. ফরিদুল আলম, আবুহেনা মোস্তফা কামাল, ইঞ্জিনিয়ার বদিউল আলম, হেলাল উদ্দিন কবির, খালেদ মোহাম্মদ, কাজী মোস্তাক আহমদ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •