ইমাম খাইর, সিবিএন:

কক্সবাজারের নবগঠিত ঈদগাঁও উপজেলার সর্বপ্রথম উচ্চশিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ‘ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজ’ এর নাম পরিবর্তন হয়েছে। এখন থেকে লিখতে হবে ঈদগাহ রশিদ আহমদ কলেজ। শিক্ষামন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তে নামটি পরিবর্তন হলো।

এ বিষয়ে অবগতির জন্য অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীসহ সর্বসাধারণের উদ্দেশ্যে ২৮ আগষ্ট নোটিশ ইস্যু করা হয়েছে।

কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জসীম উদ্দীন জানান, শিক্ষামন্ত্রণালয় কর্তৃক সদয় সম্মতি জ্ঞাপন ও প্রযোজ্য সকল শর্তাবলী পালন করায় চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড ইস্যুকৃত পত্রের (স্মারক নং-৬৩৪১(১০), তারিখ: ২৫/০৮/২০২১) আলোকে ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজ এর নাম পরিবর্তন করে ‘ঈদগাহ রশিদ আহমদ কলেজ’ নামে নামকরণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও কক্সবাজার সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু তালেব বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী কারো নামে কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সেই সিদ্ধান্তের আলোকে ফরিদ আহমদ কলেজ নাম পরিবর্তন করে রাশিদ আহমদ কলেজ করা হয়েছে।

শিক্ষাবোর্ড মারফত জানা গেছে- ২০১৯ সালের ২৭ জানুয়ারী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিভাগ বেসরকারি কলেজ শাখা -৬ এর উপ-সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম সাক্ষরিত স্মারক নং ৩৭-০০.০০০০.০৭০.৩৫.০০১.১৭.১১ মূলে প্রেরিত ওই পরিপত্রে নাম পরিবর্তন সংক্রান্ত আদেশে দেয়া হয়।

উপযুক্ত বিষয়ে বেসরকারি কলেজের নাম পরিবর্তনের লক্ষ্যে মন্ত্রনালয়ের সর্বশেষ পরিপত্র অনুযায়ী সরেজমিনে পরিদর্শন করে মন্ত্রনালয়ের নির্ধারিত ছক মোতাবেক সুস্পষ্ট মতামতসহ প্রতিবেদন প্রেরণ করার জন্য (নির্দেশক্রমে) অনুরোধ করা হয়েছিল।

ছকে ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজসহ আরও দুটি কলেজের নাম পরিবর্তনের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। ছক অনুযায়ী ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজের নাম পরিবর্তন করে ‘ঈদগাহ রশিদ আহমদ কলেজ’ নামকরণ করার তাগিদ দেয়া ছিল।

উল্লেখ্য, তৎকালীন নিখিল পাকিস্তান সরকারের শ্রমমন্ত্রী, পার্লামেন্ট সদস্য মৌলভী ফরিদ আহমদ এর নামে তাঁর নিজের এলাকা কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে প্রতিষ্ঠা করা হয় ‘ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজ’। এখন তাঁর ছোট ভাই মরহুম রশীদ আহমদের নামে কলেজটির নাম পরিবর্তন করা হলো।

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য প্রয়াত খালেকুজ্জামান ও ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ সহিদুজ্জামানের পিতা ছিলেন মৌলভী ফরিদ আহমদ।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •