সিবিএন ডেস্ক:
দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চট্টগ্রামের এক কর্মকর্তার বদলির আদেশ স্থগিত চেয়ে রিটকারীর পরিচয় নিশ্চিত হয়ে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এক রিট আবেদনের শুনানিকালে বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মো. খুরশীদ আলম খান।

এর আগে গত ৫ আগস্ট দুর্নীতি দমন কশিনের (দুদক) চট্টগ্রামের এক কর্মকর্তার বদলির আদেশ স্থগিত চেয়ে রিটকারীর পরিচয় নিশ্চিত হতে তদন্ত করে তাকে তলব করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ওই কর্মকর্তার বদলি সংক্রান্ত ভুয়া সার্টিফায়েড কপি সরবরাহ করা এবং তার ভিত্তিতে ভুল সংবাদ পরিবেশন করার পেছনে জড়িতদের বের করতে দুর্নীতি দমন কমিশনকে তদন্ত করতে বলেন আদালত। তবে এর কোনও অগ্রগতি না হওয়ায় হাইকোর্ট পরবর্তী আদেশ দিলেন।

প্রসঙ্গত, দুর্নীতি দমন কশিনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিনের বদলির আদেশ ঠেকাতে শহিদুল ইসলাম লিটন নামে এক ব্যক্তি হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন। তিনি কক্সবাজারের চকরিয়ার একটি মানবাধিকার সংগঠনের সভাপতি পরিচয়ে রিট দায়ের করেছেন। তবে তিনি সঠিক ব্যক্তি কিনা সে বিষয়ে তার পরিচয় নিশ্চিত হতে চান আদালত।

দুদকের মো. শরীফ উদ্দিনের বদলি নিয়ে চট্টগ্রামের দৈনিক পূর্বকোণসহ বেশ কয়েকটি পত্রিকা ভুল সংবাদ প্রকাশ করে। তবে ইতিমধ্যে পত্রিকাগুলোর কর্তৃপক্ষ ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।

‘সেই দুদক কর্মকর্তার বদলি আদেশ স্থগিত’ শিরোনামে গত ২৯ জুলাই চট্টগ্রামে দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদটি গত ২ আগস্ট আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী। তখন আদালত জানান, তারা এমন কোনও আদেশ দেননি। -বাংলাট্রিবিউন

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •