‍বিনোদন ডেস্ক: বিয়ে করতে ইচ্ছে করছে খুব, কিন্তু পাত্র খুঁজে পাচ্ছেন না কলকাতার অভিনেত্রী শ্রেয়া পাণ্ডে। ২০১৭ সালে অবিবাহিত শ্রেয়া সারোগেসির মাধ্যমে মা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এ নিয়ে অনেক সমালোচিত হয়েছিলেন তখন। এখন অবশ্য বলছেন বিয়ে করতে চান তিনি।

এর মাঝে যশ বিধ্বস্ত এলাকায় ত্রাণ দিতে গিয়ে প্রাণ হারানো লোকনাথ দাসের দুই সন্তানেরও লালন পালনের দায়িত্ব নিয়েছেন শ্রেয়া পাণ্ডে। এ বিষয়ে শ্রেয়া আনন্দবাজার অনলাইনকে বলেন, সুন্দরবনে যাওয়ার পথে গাড়ি উল্টে মৃত্যু হয় লোকনাথের। পরিবারে তার সন্তানদের দেখার কেউ ছিল না। মনে হলো ওদের দায়িত্ব আমার নেওয়া উচিত। আমি বলেছি, তোমাদের বাবা আমি। আগে বাড়িতে বলিনি। আমি এমন খোলামেলাই মানুষ হয়েছি। নিজেই সব সিদ্ধান্ত নিতে পারি। আমার বাবা সাধন পাণ্ডে সে ভাবেই বড় করেছেন আমাকে।

অভিনেত্রী শ্রেয়া পাণ্ডে বড় হয়েছেন রাজনৈতিক পরিবারে। তার বাবা সাধন পাণ্ডে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের মন্ত্রী। রাজনৈতিক পরিবারে জন্ম হওয়ায় রাজনীতি তার রক্তে মিশে আছে। নিয়মিত সমাজ সেবাসহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করছেন এই অভিনেত্রী।

সরাসরি রাজনীতিতে নামবেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে শ্রেয়া বলেন, এটা ঠিক আমার সব অভিনেত্রী বন্ধু এখন রাজনীতিতে। যারা এখনও যোগ দেয়নি তারাও ২০২৪ এ যোগ দিয়ে দেবে। তবে আমার মনে হয় রাজনীতির জন্য ২৪ ঘণ্টা কম সময়। মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। গরিব মানুষ খুব সাধারণ। ওরা দেখা হলে বুকে জড়িয়ে ধরে কথা বলতে চায়। ওদের কথা শোনার লোক নাই!

যারা রাজনীতিতে নতুন এসেছে তাদের উদ্দেশ্যে শ্রেয়া বলেন, রাজনীতি কিন্তু ‘পার্টটাইম জব’ নয়। তবে তিনি ২০২৪ এ রাজনীতিতে নামবেন কিনা, তার জবাব সরাসরি না দিয়ে বুঝে নিতে বললেন।

এতো বাচ্চার দায়িত্ব নিচ্ছেন বিয়ে করছেন কবে এমন প্রশ্নের জবাবে শ্রেয়া পাণ্ডে বলেন, ছেলে পাচ্ছি না তো! আমি চাই বিয়ে করতে। খুব ইচ্ছে করে। একা থাকতে একদম ভাল লাগছে না আর। এই যে বাচ্চার অনলাইন ক্লাসের দায়িত্ব নিতে হচ্ছে। মনে হচ্ছিল, স্বামী থাকলে কাজটা ভাগ করে নেওয়া যেত। আনন্দবাজার অনলাইনে তো এই সাক্ষাৎকার বের হবে। দেখি কেউ আসে কি না! প্লিজ, আপনারা একটা ছেলে খুঁজে দেন না।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •