শাহেদুল ইসলাম মনির, কুতুবদিয়া:

মহামারী করোনাভাইরাসের পরিস্থিতির কারণে সারাদেশের মতো বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ সুযোগে জুয়াড়িরা ব্যবহার করছে কুতুবদিয়া উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নের মগডেইল কাজী হেলাল উদ্দিন আহমদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে,শুধু মগডেইল কাজী হেলাল উদ্দিন আহমদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নয় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এখন স্থানীয় বখাটিদের দখলে তারা বারান্দায় বসিয়েছে জুয়ার আসর।

এদিকে আসর বন্ধ করতে গিয়ে হুমকির শিকার হয়েছেন কাজী হেলাল উদ্দিন আহমদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক শফিউল আলম ।

তিনি বলেন, ‘জুয়া খেলতে নিষেধ করলে তারা শোনে না। বেশি কিছু বললে তালা ভেঙে স্কুলের সব নিয়ে যাবে।

২২ আগস্ট ১১টার দিকে ওই বিদ্যালয়ে গেলে দেখা যায়, ১০-১২ জন লোক বিদ্যালয়ের বারান্দায় বসে জুয়া খেলছেন। স্থানীয় রফিক জানান, স্কুলের বারান্দায় এলাকার লোকরা তাস-জুয়া খেলে। স্কুল বন্ধ থাকার কারণে এটি বেড়েছে।

চারজন শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দীর্ঘ সময় স্কুল বন্ধ। ফলে স্কুলের পরিচর্যা নেই। অধিকাংশ স্কুলে পরিছন্নকর্মী এবং নৈশপ্রহরী না-থাকায় স্কুলের ভবনগুলো অরক্ষিত হয়ে পড়েছে।

বিশেষ করে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর অবস্থা বেশি বেহাল। মাঝে মধ্যে স্কুলে যাই। পরিষ্কার করি। স্কুল বন্ধ থাকায় দিনে-রাতে স্থানীয় বখাটেরা আড্ডা বসায়। তাদের কিছু বললে নানা ঝামেলায় পড়তে হয়। অনেক স্কুলে চুরি হচ্ছে। আসবাবপত্রসহ চুরি হয়ে যাচ্ছে মূল্যবান জিনিসপত্র। তদারকি ও পাহারার জন্য জনবল না থাকায় এই সমস্যা হচ্ছে।

কুতুবদিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ওমর হায়দার বলেন, অভিযোগ অথবা সুনির্দিষ্ট তথ্য পেলে বখাটে ও জুয়াড়িদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •