অনলাইন ডেস্ক: প্রেম করে ৪ বছর আগে বিয়ে করেছিলেন টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলার বাঁশতৈল ইউনিয়নের অভিরামপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং স্থানীয় যুবলীগ নেতা অমিত রাজ। কিন্তু বিয়ের তিন মাসের মাথায় শুরু হয় দাম্পত্য কলহ। নানা ঘটনা আর মামলা-মোকদ্দমার পর গতকাল শনিবার স্ত্রীকে তালাক দেন তিনি। এরপর দুধ দিয়ে গোসল করে ‘ঝামেলা মুক্ত’ হন।

দুধ দিয়ে গোসল করার দৃশ্য ভাইরাল হয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এলাকায়ও এ নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অমিত রাজ বলেন, বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীর সঙ্গে ঝামেলা শুরু হয়। একাধিকবার সালিশি বৈঠক হয়েছে, মামলা হয়েছে। বিষয়গুলো নিয়ে অতিষ্ট হয়ে উঠেছিলাম। তালাকের মাধ্যমে সবকিছুর সমাধান হয়ে গেল। আমি এখন মুক্ত।

অমিত রাজের স্ত্রীর নাম টুম্পা। পার্শ্ববর্তী উপজেলা সখিপুরের হাতিবান্ধা ইউনিয়নের রাজাবাড়ি গ্রামে তার বাড়ি। দাম্পত্য কলহ বাড়ার এক পর্যায়ে মির্জাপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন স্বামী অমিত রাজ। স্ত্রী টুম্পাও কম যান না। স্বামী এবং তার পরিবারের কয়েকজনের নামে নারী নির্যাতনের মামলা করেন, যা ভীষণ ভোগান্তিতে ফেলেছে অমিত রাজ ও তার পরিবারকে।

এক পর্যায়ে গতকাল শনিবার জেলা ডিবি পুলিশ কার্যালয়ে দুই পক্ষকে নিয়ে বৈঠক করেন কর্মকর্তারা। উভয়পক্ষের সম্মতিতে তিন লাখ টাকার বিনিময়ে তালাক মেনে নেয় টুম্পা ও তার পরিবার। এরপর বাড়ি ফিরতেই অতিম রাজের দাদি তাকে দুধ দিয়ে গোসল করিয়ে তবেই ঘরে তোলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •