বলরাম দাশ অনুপম :
পুলিশের গুলিতে নিহত সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো: রাশেদ খান হত্যা মামলার অানুষ্টানিক বিচারকার্য শুরু হয়েছে। সোমবার (২৩ আগস্ট) সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর মধ্য দিয়ে এই বিচারকার্য শুরু হয়। সোমবার সকাল ১০ টার কিছু সময় পর কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এই সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এডভোকেট ফরিদুল আলম। তিনি জানান, প্রথমে মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী নিহত মেজর সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌসের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। প্রথম দিন ৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করার কথা রয়েছে। এই রিপোট লেখা পর্যন্ত সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে৷ এসময় অাদালতে মামলার অন্যতম প্রধান আসামী টেকনাফ থানার বরখাস্তকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ১৫ আসামি হাজির ছিল। অাসামীপক্কের অাইনজীবি হিসেবে রয়েছেন অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত।
চলতি বছরের ২৬ জুলাই থেকে পরবর্তী তিন দিন সাক্ষ্যগ্রহণের সময় নির্ধারিত থাকলেও করোনা সংক্রমণে রোধে কঠোর বিধিনিষেধ চলায় তা সম্ভব হয়নি। পরে ২৩, ২৪ ও ২৫ আগস্ট সাক্ষ্য গ্রহণের নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়।
উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুরে এপিবিএন চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ। তিন বছর আগে সেনাবাহিনী থেকে অবসরে যাওয়া রাশেদ লেটস গো নামে একটি ভ্রমণ বিষয়ক ডকুমেন্টারি বানানোর জন্য গত প্রায় একমাস ধরে কক্সবাজারের হিমছড়ি এলাকায় ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •