ঈদগাঁও সংবাদদাতা:

দীর্ঘ একবছর ধরে থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত হন বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ), ঈদগাঁও শাখার সদস্য সচিব,ঈদগাঁও
রিপোর্টার্স সোসাইটির সাবেক সভাপতি, সুজন ঈদগাঁও কমিটির দপ্তর সম্পাদক এম আবু হেনা সাগরের দু-শিশু সন্তান সানজিদা হেনা আইরিন এবং মোহাম্মদ জামি। সুস্থতা কামনায় দোয়া ও চেয়েছেন পরিবার।

চিকিৎসকের পরার্মশ অনুয়ারী তাদেরকে কক্স বাজার-চট্রগ্রামের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। তৎমধ্যে চট্রগ্রামের ইমপেরিয়াল হাসপাতাল,মা ও শিশু হাসপাতাল,এপিক বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতাল,কক্সবাজারের শেভরন, ঈদগাঁওর মডেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াবেটিস কেয়ার সেন্টারে চিকিৎসা করা হচ্ছে। এ পর্যন্তও কোন প্রকার উন্নতি লক্ষ্য করা যাচ্ছেনা। প্রতি মাস অন্তর অন্তর রক্ত দিতে হচ্ছে তাদের।

সংবাদকর্মী সাগর জানান, আমার ছেলে-মেয়ের পাশে রক্তদানের মত মানবিক কাজে একান্ত সহ যোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন বৃহত্তর ঈদগাহ পথশিশু ব্লাড এসোসিয়েশন প্রতিষ্টাতা এডমিন ইমরান তৌহিদ রানাসহ আরো অনেকে। যাদের রক্তে আইরিন ও জামির জীবন বাঁচালো তাদের প্রতি চিরকৃতজ্ঞ আমার পরিবার। এমনিই কঠিন দু:সময়ে সন্তানদের খোঁজ নিলেন অনেকেই।

উল্লেখ্য,গত বছর ২২ জুন থেকে গনমাধ্যমকর্মী এম আবু হেনা সাগরের কন্যা আইরিন এবং পূত্র জামি থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত হন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •