ইফতেখার শাহজীদ, কুতুবদিয়া:

বঙ্গোপসাগরে কিনারের ফাঁড় নামক স্থানে কুতুবদিয়ার উত্তর ধূরুং ইউনিয়নের ফরিজ্যা পাড়া এলাকার আব্দুল করিমের মালিকানাধিন একটি ফিশিং ট্রলারে হামলা চালিয়ে মাছ ধরার সরঞ্জাম (জাল) ও মাছ লুটের অভিযোগ ওঠেছে একই ইউনিয়নের পশ্চিম চরধূরুং এলাকার আব্দুল মোনাফ এর বিরুদ্ধে। ২১ আগস্ট (শনিবার) দুপুরে দ্বীপের উত্তর-পশ্চিমে গভীর বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার সময় এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী ফিশিং ট্রলারের মালিক আব্দুল করিম বাদি হয়ে পশ্চিম চরধুরুং এর আবু তাহেরের পুত্র ট্রলার মালিক আব্দুল মোনাফ ও মাঝি আনচার সহ চারজনের বিরুদ্ধে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ফরিজ্যার পাড়ার মৃত আবদুর রশিদের ছেলে আব্দুল করিম বিগত ২০১৯ সালের ২৪ জুন জনৈক জাফর আলমের কাছ থেকে ১২টি বিহিন্দি জালের ফাঁড় ক্রয় করে নিয়মিত মাছ ধরে আসছিলেন। ২১ আগষ্টও (শনিবার) দুপুরে যথারীতি মাছ ধরার জন্য ফাড়েঁ জাল পাতলে চরধূরুং এলাকার আবদুল মোনাফ তার মাঝি-মাল্লা নিয়ে আক্রমণ চালিয়ে ৫টি বিহিন্দি জাল ও ৩শ ইলিশ মাছ লুট করে নিয়ে যায়। যার মূল্য আনুমানিক ১ লাখ ১৫ হাজা টাকা। আবদুল করিম সাগর থেকে ফিরে এসে বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্যদের জানালে আবদুল মোনাফ ক্ষিপ্ত হয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ সূত্রে প্রকাশ।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত আবদুল মোনাফের মালিকানাধিন ট্রলারের মাঝি আনচারের সাথে কথা হলে তিনি জানান, ফাড়েঁর বিষয়কে কেন্দ্র করে ঝগড়ার রেশে কেবল দু‘টি জাল নিয়ে আসা হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আ.স.ম শাহারিয়ার চৌধূরী বলেন, গভীর সাগরে ফাঁড়ের বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি।এ ব্যাপারে বাদী বিবাদী উভয়কে সাক্ষী-প্রমাণ সহ হাজির হওয়ার জন্য নোটিশ প্রদান করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •