বার্তা পরিবেশকঃ
সম্প্রতি জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক এস এম শওকত এর সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনেতিক উন্নয়নে কিছু মানুষের গা জ্বালা স্বম্ভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। কর্মনিষ্টা ও আদর্শ এবং সংকল্পে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ যেকোন মানুষ কর্মের মাধ্যমে মানুষ তার অবস্থার উন্নতি সাধন করতে পারে। ছাত্র নেতা, শওকতের উত্তরন উন্নতি বা উত্থান নিয়ে পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের মাথা ব্যথা নাই। বরং সে অর্থনৈতিকভাবে সফল হওয়াতে আওয়ামী লীগের যে কোন বড় মিছিল, মিটিংয়ে সে শত শত অথবা হাজার নেতাকর্মী নিয়ে মিটিংয়ে তার সর্বদা সরব উপস্থিতির যোগান দেয়।

সম্প্রতি কক্সবাজার বার্তায় প্রকাশিত পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সচিব আবুল কাশেম এর নামে মিথ্যা বিবৃতি প্রকাশ করায় উপজেলা আওয়ামলীগ তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

প্রকৃতপক্ষে পেকুয়া উপজেলার আহবায়ক আবুহেনা মোতফা কামাল এর কোন বক্তব্য প্রকাশ করা হয়নি। কিন্তু সদস্য সচিবের বক্তব্য বিকৃতভাবে প্রকাশ করায় পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ বিস্ময় প্রকাশ করেন।

প্রসঙ্গক্রমে আবুল কাশেম (সদস্য সচিব) আহবায়কে জানান, কিছু সংখ্যক ফেইক আই.ডি এবং নেতিবাচক সাংবাদিক আওয়ামী লীগকে হেয় প্রতিপন্ন করে দলের ভিতর বিভাজন এবং দ্বন্ধ করে ফায়দা লুটে নেওয়ার চেষ্টা করছে।

আমরা উপজেলা আওয়ামী লীগ কারো ব্যক্তিগত অর্থনৈতিক উন্নয়নে মাথা ঘামানোর অবকাশ নাই। তবে দলকে ব্যবহার করে অবৈধ পথে অন্যায়ভাবে কিছু করলে প্রশাসন সেখানে আইনগত ব্যবস্থা নিলে দল কোনভাবে হয় ক্ষেপ করার পক্ষে নয়।

আইনতঃ কোন ব্যবস্থা ছাড়া কাউকে খাটু করা, দোষী বলা, বিকৃত তথ্য প্রকাশ, হলুদ সাংবাদিকতার পরিচয় বহন করে। আমরা উপজেলা আওয়ামী লীগ এস এম শওকতের বিষয়টি নিরীক্ষণে আছি। যারা ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে, দলে দ্বন্ধ ও সংঘাত সৃষ্টির জন্য মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করছে; আপনাদেরকে তথ্যবহুল এবং সঠিক সংবাদ পরিবেশনের জন্য উপদেশ রাখলাম।

আশা করি বিষয়টির গভীরে প্রবেশ করে উপজেলা আওয়ামী লীগকে সহযোগিতা প্রদান করবেন।

আমরা এস এম শওকতের ব্যবসায়িক ও রাজনৈতিক সাফল্য কামনা করি। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

স্বাক্ষরিত
আবু হেনা মোস্তফা কামাল
আহবায়ক

আবুল কাশেম
সদস্য সচিব
পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •