সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁও:
দীর্ঘ ৩০ বছরের ভোগদখলীয় জমি দখলে বাধা দেওয়ায় প্রতিপক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে নারীসহ চারজনকে গুরুতর আহত করেছে। এসময় ২ নারীকে শীলতাহানিরও অভিযোগ উঠেছে।

বৃহষ্পতিবার (১৯ আগষ্ট) বিকেলের দিকে চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ৬নং ওর্য়াড হরইখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, বর্নিত ইউনিয়নের হরইখোলা গ্রামের নুরুল কবির মিস্ত্রির স্ত্রী নুর জাহান (৬০), তার কন্যা জন্না (৩২), উর্মি সোলতানা (২৮) বর্তমানে ৭ মাসের গর্ভবতী ও পুত্র এনামুল কবির(৩০)। আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় চকরিয়া থানার একটি এজাহার দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, মাত্র ৯০ কড়া জমি দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে ভোগ দখলে রয়েছে ইউনিয়নের ৬নং ওর্য়াড হরইখোলার বাসিন্দা নুরুল কবিরের স্ত্রী নুর জাহান। অনেক বছর ধরে হালচাষ ও ক্ষেত খামার করে আসলেও ঐ জমির একটি অংশ ২০/২৫ কড়া দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় দখলবাজ চক্র।

বৃহষ্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে একই এলাকার জাফর আলমের পুত্র জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে দখলবাজ চক্রের সদস্য সাইফুল, মোঃ কালুর পুত্র নুরুচ্ছফা ও তার ভাই কামাল একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নুর জাহানের ভোগ দখলীয় জমিতে রোপিত গাছপালা,ঘেরাবেড়া ও মাটি কাটা শুরু করে।

খবর পেয়ে একইদিন বিকেলে ঘটনাস্থলে গেলে নুরুল কবিরের স্ত্রী, কন্যা ও পুত্রকে পিঠিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় সন্ত্রাসীরা তাদের গলায় ও কানে থাকা স্বর্ণালংকার, মোবাইলও ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার আনোয়ার হোসেন বলেন ঘটনা শুনেছি। উভয় পক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসে বিষয়টি সমাধান করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •