আলমগীর মানিক,রাঙামাটি:
খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার এমপি বলেছেন, প্রতিটি “গ্রাম হবে শহর” এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রতিটি দুর্গম অঞ্চলের প্রতিটি গ্রামকে শহর হিসেবে রুপান্তর করে একটি আর্দশ গ্রাম হিসেবে গড়ে তোলার কাজ করে যাচ্ছে। আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের প্রায় প্রতিটি গ্রামে উন্নয়ন ছোঁয়া লেগেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে ১০টায় ১ কোটি ২৩ লাখ টাকা ব্যয়ে রাঙামাটি এলজিইডি’র অর্থায়নে বন্দুকভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্মিত ভবনের শুভ উদ্বোধনী পরবর্তী রাঙামাটি সদর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে ফিতা কেটে ইউনিয়ন ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন তিনি।

সভায় তিনি আরো বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে যোগাযোগ, স্বাস্থ্য, শিক্ষাসহ সকল বিভাগে উন্নয়ন হয়েছে। যেসকল এলাকায় বিদ্যুৎ নেই, সেসকল এলাকায় সৌর বিদ্যুৎের মাধ্যমে আলো পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। নতুন নতুন রাস্তা তৈরী করা হচ্ছে। আওয়ামী লীগ সরকার পাহাড়ের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে বদ্ধ পরিকর। কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়ন কর্মকান্ডকে সবসময় বাধাগ্রস্থ করার চেষ্টা করে পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্রধারীরা। পাহাড়ের যেকোন উন্নয়ন কর্মকান্ডকে থমকে দেওয়ার জন্য লিপ্ত থাকে তারা। পাহাড়ের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এসকল অবৈধ অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়ানোর আহব্বান জানান তিনি।

রাঙামাটি সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা ফাতেমা তুজ জোহুরার সভাপতিত্বে সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য হাজী কামাল উদ্দিন, সাবেক রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চিংকিউ রোয়াজা,সাবেক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, রাঙামাটি সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শহীদুজ্জামান মহসিন, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য বিপুল ত্রিপুরা, রাঙামাটি এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী আবু তালেব চৌধুরী, বন্দুকভাঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বরুন কান্তি চাকমা বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভা শেষে, দুঃস্থ ও অসহায় ১০০পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ও রাঙামাটি সদর উপজেলার আওতাধীন ৫নং বন্দুকভাঙ্গা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন দীপংকর তালুকদার এমপি। এছাড়াও তিনি ইউনিয়নে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিদর্শন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •