শাহেদুল ইসলাম মনির, কুতুবদিয়া:

কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি, সাবেক সাধারণ সম্পাদক, লেমশীখালী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এবং কক্সবাজার জেলা আ’লীগের উপদেষ্টা ছৈয়দ আহমেদ কুতুবী (৮৭) এর নামাজে জানাযা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ আগষ্ট) উপজেলার সন্ধ্যা ৬ টায় লেমশীখালী ইউনিয়নের আল ফারুক দাখিল মাদ্রাসার মাঠে এ জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।নির্ধারিত সময়ের অনেক আগে থেকেই মুসল্লীরা নামাজে জানাযায় অংশ নেয়ার জন্য আসতে থাকে। একপর্যায়ে জানাযার নামাজে মানুষের ঢল নেমে আসে এবং মাদ্রাসা মাঠ পুরো ভরে যায়।মরহুমের জানাযা নামাজের শেষে মরদেহের কফিনে স্থানীয় সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক এমপি উপজেলা প্রশাসন, জেলা আওয়ামীলীগ, উপজেলা আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ ও তার অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন মহল ফুলেল শ্রদ্ধা আবেদন করেন। জানাযা শেষে মরহুমের লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

আল ফারুক দাখিল মাদ্রাসা মাঠে মরহুমের জানাযা নামাজ পূর্বে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, জেলা আ’লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি ও কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরের জামান চৌধুরী, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর হায়দার,
জেলা আ’লীগের সিনিয়র সদস্য আহমদ উল্লাহ, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবর, সাধারণ সম্পাদক ও আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুচ্ছাফা বিকম, ছৈয়দ আহমেদ কুতুবীর ছেলে আসন্ন ইউপি নির্বাচনের আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী রেজাউল করিম (রেজু) এবং উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ জানাযার নামাজে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি সহ সর্বস্তরের লোকজন অংশ নেন।

উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগ নেতা ছৈয়দ আহমেদ কুতুবী (৮৭) মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

এর আগে কক্সবাজার কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে দুপুর ২ টায় মরহুমের প্রথম নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। মৃত্যুকালে তিন ছেলে, তিন মেয়ে ও স্ত্রীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার বাড়ি উপজেলার লেমশীখালী ইউনিয়নের গাইনি কাটা গ্রামে। তার মৃত্যু সংবাদে দলীয় নেতাকর্মীসহ এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। বিভিন্ন মহল থেকে তার রূহের মাগফিরাত কামনাসহ শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানানো অব্যাহত রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •