প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষক, কসউবি-২০০০ ব্যাচের ছাত্র কক্সবাজার সদর হাসপাতালের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ শহীদুল আলমের পিতা বদরুল আলম (৮২) বুধবার (১১ আগস্ট) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আইসিইউ’তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন।

প্রবীণ শিক্ষক মরহুম বদরুল আলমের প্রথম নামাজে জানাজা বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) সকাল ১১ টায় কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এবং দ্বিতীয় নামাজে জানাজা খুরুস্কুলের মনুপাড়া জামে মসজিদ সংলগ্ন মাঠে জোহরের নামাজের পর অনুষ্ঠিত হয়।

প্রবীণ শিক্ষক মরহুম বদরুল আলম করোনা আক্রান্ত অবস্থায় শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হয়ে চার দিন ধরে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আইসিইউ-তে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

মৃত্যুকালে তিনি চার পুত্র, তিনি কন্যা সন্তান, অসংখ্য ছাত্র, গুণগ্রাহী রেখে যান। এদিকে, গুনী শিক্ষক বদরুল আলমের মৃত্যুর খবরে কক্সবাজার শহর ও খুরুস্কুলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

শিক্ষাবিদ বদরুল আলম করোনা ছাড়াও বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত ছিলেন। সুদীর্ঘকাল শিক্ষকতা করে ১৯৯৮ সালে অবসর নেন।

প্রবীণ শিক্ষক ও সহপাঠি ডা: শহীদুল আলমের পিতা বদরুল আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি ব্যাচ ২০০০ (কসউবি-২০০০) এর শিক্ষার্থীরা।

কসউবি-২০০০ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা তাদের গুণী শিক্ষক বদরুল আলমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে বলেন, ” আখতার কামাল স্যার আমাদের প্রিয় শিক্ষক, তিনি আমাদের আদর্শ। একজন আদর্শ শিক্ষকের কখনও মৃত্যু হয় না। তিনি তাঁর সততা, দক্ষতা, যোগ্যতা, দেশপ্রেম, ত্যাগের মহিমা ও নৈতিকতার মাধ্যমে ছাত্রদের মনোজগতে অমরত্বের বীজ বপন করে গেছেন। তাঁর শিক্ষা, আদর্শ ও নীতি-নৈতিকতা সবার কাছে অনুসরণীয় হয়ে থাকবে আজীবন।

শিক্ষক বদরুল আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে শোকবার্তা পাঠিয়েছেন কক্সবাজার জেলা জজ আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর (স্পেশাল পিপি) এডভোকেট রেজাউর রহমান রেজা, সরকারি মহিলা কলেজের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক মো: ফয়েজ উল্লাহ ফয়েজ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক মো: মোস্তফা, মোজাহেরুল ইসলাম আনু, ঠিকাদার ফরহাদ, খলিল, হাবিব উল্লাহ, রাসেলসহ আরো অনেকে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •