সিবিএন ডেস্ক:
দেশে করোনা পরিস্থিতি সন্তোষজনক নয় বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন পেশার মানুষের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে; যদিও পরিস্থিতি সন্তোষজনক নয়। আমরা জীবন-জীবিকার কথা বিবেচনা করে সব ধরনের পদক্ষেপই নিচ্ছি। তবে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির আরও অবনতি হলে ফের বিধিনিষেধ (লকডাউন) দেওয়া হতে পারে।’

বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ফরহাদ হোসেন জানান, দেশে করোনার সংক্রমণ ৫ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনতে হবে। বিধিনিষেধ ধাপে ধাপে শিথিল করার ধারাবাহিতায় আজ জারি করা প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র চালু করতে বলা হয়েছে। ১৯ আগস্ট থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শতভাগ গণপরিবহন চালু করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির অবনতি হলে সরকার দুটি কৌশল অবলম্বন করতে পারে। একটি হলো বিধিনিষেধ বা লকডাউন দেওয়া। অন্যটি হচ্ছে পুরোপুরি ছড়ে দেওয়া। যে কৌশলই নিক না কেন, সবাইকে কিন্তু মাস্ক পরতে হবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় অস্ট্রেলিয়ায় সেনাবাহিনী নামানো হয়েছে, কারফিউ দেওয়া হয়েছে। আমেরিকায় লকডাউন দেওয়া হয়েছে। কারণ, এর আর কোনও বিকল্প নেই। আমাদের এখন স্বাস্থ্যবিধির ওপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। মাস্ক পরে, শারীরিক দূরত্ব মেনে সবাই তারা তাদের কাজগুলো করবে, সেটিই আমরা প্রত্যাশা করি।’ আমাদের সংক্রামক ব্যাধি আইন আছে, কেউ আইন ভাঙলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের এই জীবনের মধ্যেই অভ্যস্ত হতে হবে। দুটির সমন্বয় আমাদের করতে হবে। করোনা প্রতিরোধ নিয়ে সরকার যথেষ্ট করেছে। না হলে করোনার সংক্রমণে বিস্ফোরণ ঘটতে পারতো।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •