প্রেস বিজ্ঞপ্তি
আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে হত্যার মূল নীলনকশা করেছিলেন জেনারেল জিয়াউর রহমান। ঘাতকদের তিনি বিভিন্নভাবে পুরস্কৃত করে ইতিহাসের একটি কলঙ্কজনক অধ্যায়ের সূচনা করেছিলেন জেনারেল জিয়া। জাতি কোনদিন এই খুনিদের ক্ষমা করবে না।

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে ১১ আগষ্ট বেলা দুইটায় মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি আশেক এসব কথা বলেন।

শোক দিবসের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- মহেশখালীর বিভিন্ন ইউনিয়নে শোকের মাসে অসহায় মানুষদের মাঝে চাল বিতরণ।
১৫ আগস্ট উপজেলা ও পৌর মহেশখালী লীগের উদ্যোগে কাঙ্গালী ভোজ। ১৭ আগস্ট ও ২১ আগস্ট যথাযথ মর্যাদায় পালন করার কর্মসূচি গৃহীত হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার পাশা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ডাক্তার নুরুল আমিন, সহসভাপতি এম আজিজুর রহমান, মহেশখালী পৌরসভার মেয়র মকসুদ মিয়া, মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান ফরিদুল আলম, সহ সভাপতি মাষ্টার লিয়াকত, আলী সহ-সভাপতি এনামুল হক চৌধুরী রুহুল, উপদেষ্টা মৌলভী ওসমান গনি, সহ-সভাপতি নুরুল আলম, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবু তালেব, মোহাম্মদ রুহুল আমিন, ব্রজ গোপাল ঘোষ, সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ বাচ্চু, দপ্তর সম্পাদক বাবু নির্মল চক্রবর্তী, ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সাজেদুল করিম, যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শেখ কামাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল হক, উপ প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক এহসানুল করিম, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুল আলম, সদস্য সাবেক চেয়ারম্যান শামসুল আলম, সদস্য সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ, সদস্য আমিরুজ্জামান আনজু, সেলিম চৌধুরী, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক এম রফিকুল ইসলাম, মাতারবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম ছমি উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হারুনুর রশিদ ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ বাবু।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •