পেকুয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের পেকুয়ায় রোকসানা আক্তার (৩৬) নামে এক গৃহবধূ গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

মঙ্গলবার (১০ আগষ্ট) দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার টইটং ইউনিয়নের বকসুমোরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রোকসানা একই এলাকার ওমান প্রবাসী দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী।

তবে নিহতের স্বামী, মা ও ভাইয়ের শ্বশুরবাড়ির লোকজন রোকসানাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে অপপ্রচার করছে।

পেকুয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে ক্লু উদঘাটনের পাশাপাশি লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছে।

নিহতের ছেলে ইমন জানায়, ছোট ভাই তাহমিদকে খুঁজে পাচ্ছিলাম না। অপর ছোট ভাই সায়মনকে নিয়ে খুঁজতে বের হই।বাড়িতে এসে দেখি রান্নাঘরের আড়ায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় মা ঝুলছে। ছোট ভাই সাইমনসহ আমরা ওড়না কেটে দিয়ে নিচে নামায়। বিভিন্ন অপবাদ দিয়ে দাদী ও চাচারা মাকে প্রায় সময় বকাঝকা করতো।

নিহতের মা রাবিয়া বসরি জানায়,আমার মেয়েকে শ্বাশুরি ও দুই দেবর আমির হোসেন ও জমির হোসেন মিলে মেরে ফেলেছে। পরকিয়ার অপবাদ দিয়ে রোকসানাকে অনেক আগে থেকে নির্যাতন চালাতো। হত্যা করে এখন আত্মহত্যা করেছে বলে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। আমার মেয়ের হত্যার বিচার চাই।

রোকসানার স্বামী দেলোয়ার হোসেন ওমান থেকে ভিডিও কলে জানায়,আমার স্ত্রীকে মা ও ভাইয়েরা মিলে মেরে ফেলেছে। তাকে মানসিক নির্যাতন চালাতো প্রতিনিয়ত।

ইউপি সদস্য আবুল কাছিম বলেন,রোকসানার স্বামী চার বছর ধরে ওমানে থাকেন। শ্বশুর বাড়ির লোকজনের সাথে তেমন ভাল সম্পর্ক ছিলনা। বিভিন্ন সময়ে এনিয়ে বিভিন্ন কথা শুনেছি।

পেকুয়া থানার ওসি সাইফুর রহমান মজুমদার জানায়, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি ময়নাতদন্ত করার জন্য নিয়ে এসেছে। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •