পেকুয়া প্রতিনিধি:

পেকুয়ায় র‌্যাব-৭ চট্টগ্রামের অভিযানে ১ লাখ ১৬ হাজার ৩০০ ইয়াবাসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

তারা হলেন- চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ইউপির আবু তাহেরের ছেলে আসামী রমিজ উদ্দিন (৩৪) ও তার শ্যালক পূর্ব উজানটিয়া এলাকার আবুল কালামের ছেলে ওয়াইজ উদ্দিনকে (২৪)।

সোমবার (৯আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের পূর্ব উজানটিয়ায় অভিযান চালানো হয়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় র‌্যাব এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, কক্সবাজারের পেকুয়া থানাধীন পূর্ব উজানটিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে আনুমানিক ৩ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা মূল্যের ১,১৬,৩০০ (এক লক্ষ ষোল হাজার তিনশত) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম।

র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম অস্ত্রধারী সস্ত্রাসী, ডাকাত, ধর্ষক, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনি, বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার, মাদক উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করায় সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

যার ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কক্সবাজার জেলার পেকুয়া থানাধীন পূর্ব উজানটিয়া এলাকায় কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে গত ০৯ আগস্ট ২০২১ ইং তারিখ ২২২০ ঘটিকায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর একটি চৌকস আভিযানিক দল বর্ণিত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সু-কৌশলে পালানোর চেষ্টাকালে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে রমিজ উদ্দিন ও ওয়াইজ উদ্দিনকে আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেখানোমতে বসত ঘরের ভিতর খাটের নিচে প্লাস্টিকের বস্তায় বিশেষ কায়দায় রক্ষিত অবস্থায় ১,১৬,৩০০ (এক লক্ষ ষোল হাজার তিনশত) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীদের গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ কক্সবাজার জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে পরবর্তীতে তা কক্সবাজারসহ দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ৩ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা

গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত আলামত সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার পেকুয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

পেকুয়া থানার ওসি মোঃ সাইফুল রহমান মজুমদার ইয়াবা সংক্রান্ত বিষয়ে মামলা রুজুর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •