সিবিএন ডেস্ক:
সময় বদলেছে। অনেক লাখপতি-কোটিপতি হওয়া খুবই সহজ। তাই ভারতের অনেক শহরে অনেক লাখপতি-কোটিপতির দেখা মেলে। দেশটির রাজস্থান রাজ্যে এমন বহু লাখপতি-কোটিপতি রয়েছে। কিন্তু তাই বলে লাখপতি কবুতর! শুনতে অবাক লাগলেও রাজ্যের নাগৌরের ছোট একটি শহর জাসনগরে এমন লাখপতি কবুতরও রয়েছে। খবর টাইমস নাউ নিউজের।

তাদেরকে বলা হয়, মাল্টিমিলিওনিয়ার কবুতর। কেননা তাদের নামে লাখ লাখ টাকার সম্পদ রয়েছে। সম্পদের সেই তালিকায় রয়েছে কয়েকটি দোকান, কয়েক কিলোমিটার দীর্ঘ জমি। এমনকি ব্যাংকে তাদের নামে নগদ টাকাও রয়েছে।

জানা গেছে, লাখপতি ওই কবুতরদের মালিকানায় রয়েছে ২৭টি দোকান। ১২৬ বিঘা জমি। আর ব্যাংকে জমা আছে ৩০ লাখ রুপি। এখানেই শেষ নয়, ওই কবুতরদের মালিকানায় রয়েছে ৪০০টি গোশালা, যেগুলো গড়ে উঠেছে ১০ বিঘা জমির ওপর।

প্রায় ৪০ দশক আগে একজন নতুন শিল্পপতি কবুতরদের নামে কবুতরন ট্রাস্ট গঠন করেন। শিল্পপতি সজ্জনরাজ জৈন এই প্রজেক্টের সূচনা করেন। ওই প্রজেক্ট শুরু হওয়ার পর মানুষজন ট্রাস্টে মুক্তহস্তে দান করতে থাকেন। এখন ওই কবুতরদের মালিকানায় যে গোশালা রয়েছে, সেখানে ৫০০টি গরু রয়েছে।

মানুষজনের এই দান থেকে শহরে ২৭টি দোকান পরিচালিত হচ্ছে, যাতে করে এই কবুতরদের জন্য নিয়মিত খাবার ও পানির জন্য প্রয়োজনীয় টাকা যোগাড় করা যায়। আসলে এই ট্রাস্টের নামকরণই করা হয়েছে কবুতরদের নামে। এজন্য এটাকে কবুতরন ট্রাস্ট বরা হয়।

এসব দোকান থেকে প্রতি মাসে ৮০ হাজার রুপি ভাড়া আসে। জমিও ভাড়া দেয়া হয়েছে। তাই ট্রাস্টে নিয়মিত টাকা জমা পড়ে। আর এসব টাকা ব্যাংকে রেখে দেয়ার পর এখন সেখানে ৩০ লাখ রুপি জমা হয়েছে। গত ৩০ বছর ধরে এভাবেই প্রতিদিন খাবার যোগাড় হচ্ছে এই কবুতরের। গোশালার ব্যয় চলছে ওই টাকায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •