বিশেষ প্রতিবেদক:
প্রতিদিনের মতো জীবিকার তাগিদে রিক্সা নিয়ে কক্সবাজার শহরে বের হন আব্দুস শুক্কুর । ৮ আগষ্ট সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে শহরের বাজারঘাটায় যাত্রীর সন্ধানে রাস্তায় দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। এ সময় শুকুর আলী রিক্সাওয়ালার কাছে জানতে চান “এই তুই চেরংঘর বাজার যাবি নাকি?”
উত্তরে রিক্সাওয়ালা জানান- যাব স্যার ‌। ভাড়া কত জানতে চাইলে রিক্সাওয়ালা জানান ২০০ টাকা। এত টাকা ভাড়া কেন ক্ষিপ্ত হয়ে সে রিক্সাওয়ালার সঙ্গে দুর্ব্যবহার শুরু করে এবং এক পর্যায়ে তার ওপর চড়াও হয় কিল ঘুষি মারতে থাকে। প্রকাশ্য দিবালোকে অনেক মানুষের সামনে কর্দমাক্ত রাস্তার উপর দিয়ে তাকে টেনে হেঁছড়ে নিতে থাকে। এমতাবস্থায় কয়েকজন ব্যক্তি রক্সিাওয়ালাকে কোনমতে রক্ষা করে। মারধরের ঘটনায় তিনি শারিরিকভাবে আহত হন এবং মানসিকভাবে প্রচণ্ড আঘাত পান তিনি। ঘটনাটির ভিডিও ভাইরাল হলে সোমবার (৯ আগষ্ট) বিকাল ৩টার দিকে ঘটনাটি পুলিশ সুপারের নজরে আসে। সঙ্গে সঙ্গে হামলাকারীকে আটক এবং ভিকটিম রিকশাওয়ালার সন্ধান নিতে কক্সবাজার সদর মডেল থানা, কক্সবাজার শহর ফাঁড়ি এবং জেলা গোয়েন্দা শাখাকে নির্দেশ দেওয়া হয়। কক্সবাজার শহর ফাঁড়ির পুলিশ নির্দেশ পাওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যে ঘটনায় হামলাকারী শুকুর আলীকে আটক করে। অপরদিকে ভিকটিম রিক্সাওয়ালাকে খুঁজে বের করা হয়। পুলিশ সুপারের কার্যালয় রিক্সাওয়ালাকে নেওয়া হলে তিনি পুরো ঘটনার বর্ণনা করে কান্নায় ভেঙে পড়েন। এ সময় তাকে সান্ত্বনা দেওয়া হয় এবং তাকে আশ্বস্ত করা হয় এই ঘটনার বিষয়ে তিনি যাতে ন্যায়বিচার পান সম্ভাব্য সব রকমের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে  শুকুর আলীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলে জানান পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •