টেকনাফ সংবাদদাতা:
টেকনাফে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে মাদক ও অস্ত্রসহ ৬ মামলার আসামি মো. হাবিকেকে হাতকড়াসহ ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় থানার এসআই মহিউদ্দিন, রফিকুল ইসলাম রাফি ও নাজির হোসেন আহত হয়েছেন।
বুধবার (৪ আগষ্ট) বিকালে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ছোট হাবির পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান জানান, মাদক ও অস্ত্রসহ ৬ মামলার পলাতক আসামি টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ছোট হাবির পাড়ার বাসিন্দা হাবিবুর রহমান হাবিব ওরফে মগুকে গ্রেফতারের সময় স্থানীয় ইউপি সদস্য সৈয়দুল ইসলামের নেতৃত্বে আসামির স্বজনরা পুলিশের ওপর হামলা করে। হাতকড়া পরা অবস্থায় আসামিকে ছিনিয়ে নেয়।
এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে আহত পুলিশদের উদ্ধার করে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।
ওসি আরও জানান, ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়া আসামি হাবিবকে পুনরায় গ্রেফতারে অভিযান ও মামলার প্রস্তুতি চলছে।
টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক মাহজারুল হক জানান, আহত তিন পুলিশ সদস্যকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তাদের শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।
তবে, ইউপি সদস্য হাফেজ সৈয়দুল ইসলামের পরিবারকে হয়রানি করছে এমন অভিযোগ উঠেছে।
মেম্বারের ভাই শাকের আহমদ জানান, আসামি হাবিবুর রহমান হাবিব ওরফে মগুকে পুলিশের কাছ থেকে কে বা কারা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। এসময় মেম্বার আশপাশেও ছিলো না। ঘটনার পর অভিযানে থাকা পুলিশ স্থানীয় মেম্বারকে ফোন দিয়ে ঘটনাস্থলে ডেকে নিয়ে যায় এবং ছিনিয়ে নেওয়া আসামিকে পুনরায় গ্রেফতার করতে সহায়তা চাইলে মেম্বার নিজেই উপস্থিত থেকে চেষ্টা করেন।
পরে ঘটনার বিষয়ে ‘কথা আছে’ বলে পুলিশ তাকে থানায় যেতে বললে জনপ্রতিনিধি হিসাবে সহজ সরলভাবে থানায় যান। শোনা যাচ্ছে, তাকেও আসামি করা হচ্ছে। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।
প্রতিপক্ষের লোকজন প্রশাসনকে ভুল তথ্য দিয়ে হয়রানীর চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ স্ত্রী মাহফুজার। তিনি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •