সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ
সবুজায়নে উদ্বুদ্ধ করতে এবার পর্যটন নগরীতে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল লায়ন্স ক্লাবের পক্ষ থেকে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। কক্সবাজার শহরের বিখ্যাত বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুলে ফলজ, বনজ গাছ লাগানোর মাধ্যমে আজকের এই কর্মসূচির শুভঊদ্ভোধন করেন যৌথভাবে ক্লাবের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার শাহেদ সালাউদ্দিন ও স্কুলের প্রিন্সিপাল ইয়াছিন আরাফাত।
কক্সবাজার শহরের প্রশাসনিক কেন্দ্র, বিনোদন কেন্দ্র, সি-বিচের বিভিন্ন পয়েন্ট সহ বেশ কিছু এলাকায় বৃক্ষরোপণ করার ঊদ্ধ্যোগ নেয়া হয়।
বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির পাশাপাশি ব্যানার-ফ্যাস্টুন নিয়ে গাছ লাগানোর জন্য দর্শনার্থীদের আহবান করা হয়। ক্লাবের মৌলিক অংশ “পরিবেশ” রক্ষার কাজ হিসেবে প্রতি বছর সারা পৃথিবীতে আবশ্যিক এ কর্মসূচি পালন করা হয়।
আজ থেকে শুরু হওয়া এ কর্মসূচি আগামী সোমবার শেষ হবে।
ক্লাব কর্তৃপক্ষ জানান, দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলার নানা শ্রেণির মানুষের মাঝে গাছ লাগানোর বার্তা পৌঁছে দেয়ার কর্মসূচি হাতে নিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল লায়ন্স ক্লাব। কর্মসূচির প্রথম দফায় বেছে নেয়া হয়েছে দেশের শীর্ষ পর্যটন নগরী কক্সবাজার জেলা। বিয়াম স্কুল এলাকা ও ক্যাম্পাসে গাছের চারা লাগিয়ে এই কার্যক্রম চালু হয়।
ক্লাবের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার শাহেদ সালাউদ্দিন বলেন, ইন্টারন্যাশনাল লায়ন্স ক্লাবের কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমরা বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেছি। এছাড়া জীবনধারণ করার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মৌলিক চাহিদা হল অক্সিজেন, যা আমাদের যোগান দেয় উদ্ভিদ। তাই জীবনের জন্য ও পরিবেশের জন্য উদ্ভিদকুলকে বাঁচিয়ে রাখতে বৃক্ষরোপণের বিকল্প নেই।
ক্লাবের ডিরেক্টর মিজানুল করিম জানান, প্রাণীকূল বেঁচে থাকার জন্য বৃক্ষ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বৃক্ষ মূলত পরিবেশ, আবহাওয়া ও জলবায়ুর ভারসাম্য বজায় রাখে। বন্যা, খরা, ঝড়, টর্নেডো, জলোচ্ছ্বাস, ওজনস্তর ক্ষয়, ভূমিক্ষয়, জলবায়ু পরিবর্তন, শব্দদূষণ, মাটিদূষণ, পানিদূষণ, বায়ুদূষণ প্রতিরোধ করে। এক কথায় প্রকৃতির অমূল্য ও প্রধান সম্পদ হচ্ছে বৃক্ষ। পৃথিবীকে বসবাসের উপযোগী করতে ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের করাল গ্রাস থেকে দেশকে রক্ষা করতে বৃক্ষরোপণের কোনো বিকল্প নেই। তাই বৃক্ষরোপণ কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আশপাশে, উঁচু-নিচু পতিত জমি, রাস্তার পাশে, নদীর পাড়ে গাছ লাগানো অতীব গুরুত্বপূর্ণ।
এসময় উপস্থিত ছিলেন ক্লাবের উপদেষ্টা স্পেশাল পি. পি,এড. একরামুল হুদা ,ক্লাবের ডিরেক্টরগন যথাক্রমে রিদুয়ান শরীফ, ছৈয়দনুর জাহাঙ্গীর ,চার্টার মেম্বার যথাক্রমে শামসুদ্দীন ফারুকী,প্রিন্সিপাল দিদার উল্লাহ, হোসাইন বাহাদুর , প্রিন্সিপাল রিয়াদ হায়দার ,জয়নাল আবেদীন, মোঃ জসিম, ওবাইদুল হান্নান ,শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •