মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

প্রায় ৩০ কোটি টাকা অর্থাৎ সাড়ে তিন মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে কক্সবাজারে পরিপূর্ণ একটি এলিট ফুটবল একাডেমি নির্মাণ করা হবে। বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)-কে জাতীয় পর্যায়ের দেশের একমাত্র আধুনিক এই একাডেমি নির্মাণের জন্য এ অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে। বাফুফে’র বিশ্বস্ত সুত্র সিবিএন-কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সুত্র মতে, দেশের একমাত্র আধুনিক ফুটবল একাডেমি নির্মাণের জন্য খুব শীঘ্র কক্সবাজারে জমি নির্ধারণ করা হবে। এজন্য বাফুফে’র উচ্চ পর্যায়ের একটি টিম কক্সবাজারে একাডেমির জন্য জমি পরিদর্শনে আসবেন। কক্সবাজার জেলা সদর ও টেকনাফের মাঝামাঝি অবস্থানে জমি নির্ধারনের চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। প্রস্তাবিত পরিপূর্ণ এলিট ফুটবল একাডেমিতে ২ টি খেলার মাঠ, জিম, সুইমিং পুল, হেলথ্ সেন্টার সহ প্রয়োজনীয় সব বিশ্বমানের আধুনিক স্থাপনা থাকবে। এটি হবে দেশের একমাত্র আধুনিক ফুটবল একাডেমি। যেখানে শুধু ফুটবল’কে কেন্দ্র করে সবকিছু পরিচালিত হবে।

এলিট ফুটবল একাডেমি নির্মাণের জন্য ফিফা’র এখন বরাদ্দ দেওয়া প্রায় ৩০ কোটি টাকা ছাড়াও প্রয়োজন সাপেক্ষে আরো অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সুত্রটি। বর্তমানে ঢাকা’র কমলাপুর স্টেডিয়ামে গড়ে তোলা ফুটবল একাডেমি আগামী ১ সেপ্টেম্বর উদ্বোধন করা হবে। তবে এটি পূর্ণাঙ্গ ফুটবল একাডেমি নয়। ফিফা’র অর্থায়নে কক্সবাজারে প্রস্তাবিত
এলিট ফুটবল একাডেমি’র কাজ শেষ হলে কমলাপুর স্টেডিয়াম থেকে সরিয়ে একাডেমির কার্যক্রম কক্সবাজারেই পরিচালিত হবে বলে জানিয়েছে সুত্রটি।

এদিকে, কক্সবাজারে এলিট ফুটবল একাডেমি নির্মাণের বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি এম. জাহেদ উল্লাহ জাহেদ বলেছেন, প্রস্তাবিত এলিট ফুটবল একাডেমি কক্সবাজারের ফুটবল খেলোয়াড় ও ক্রীড়ামোদীদের জন্য নিঃসন্দেহে একটা সুখবর। এটা বাংলাদেশের ফুটবলের বিশ্ব র‍্যাংকিং বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। প্রস্তাবিত এই একাডেমি কক্সবাজারে জাতীয় মানের ফুটবল খেলোয়াড় সৃষ্টিতে এবং কক্সবাজারের সুনাম বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন-জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এম. জাহেদ উল্লাহ জাহেদ। দেশের প্রথম ও একমাত্র পূর্ণাঙ্গ এলিট ফুটবল একাডেমি’টি কক্সবাজারে নির্মাণের জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়ায় সাবেক কৃতি ফুটবলার এম. জাহেদ উল্লাহ জাহেদ বাফুফের নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •