অনলাইন ডেস্ক: কোভিড-১৯ এর (করোনাভাইরাস) সংক্রমণ রোধে চলমান বিধিনিষেধের মেয়াদ আরও পাঁচদিন বাড়ানো হয়েছে। ফলে বিধিনিষেধ আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। ১১ আগস্ট থেকে সীমিত আকারে চলবে গণপরিবহন। সেদিন থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে খুলবে দোকানপাটও।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠক শেষে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান।

করোনা রোধে চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে গত শুক্রবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক আদেশে জানানো হয়, ১ আগস্ট থেকে রপ্তানিমুখী সব শিল্প ও কলকারখানা চলমান বিধিনিষেধের আওতাবহির্ভূত করা হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের পর শ্রমিকেরা গ্রামের বাড়ি থেকে দুর্ভোগ নিয়ে ঢাকাসহ বিভিন্ন কলকারখানার অভিমুখে রওনা হন। একপর্যায়ে গত রবিবার দুপুর পর্যন্ত গণপরিবহন চালুর অনুমোদন দেয় সরকার।

চলমান কঠোর বিধিনিষেধের মেয়াদ আরও বাড়ানো হবে কি না সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে মঙ্গলবার সরকারের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক বসে। সেখানে আরও পাঁচ দিন বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়।

ভার্চুয়ালি সভা শেষে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী মোজাম্মেল হক বলেন, আগামী ১১ আগস্ট থেকে পর্যায়ক্রমে সীমিত সংখ্যক যানবাহন চলবে। খুলবে দোকানপাটও।

মন্ত্রী আরও জানান, ১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া কেউ মুভমেন্ট করলে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে। অবশ্যই ভ্যাকসিন নিতে হবে। ১৪ হাজার কেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। আইন না করলেও অধ্যাদেশ জারি করে হলেও শাস্তি দেওয়ার ক্ষমতা দেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •