অনলাইন ডেস্ক
জার্মান গণমাধ্যমের এক বিবৃতিতে জানা গেছে, লকডাউনবিরোধী আন্দোলনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে গতকাল রবিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় ৬০০ জনকে আটক করা হয়। জার্মান সরকারের করোনা নিয়ন্ত্রণে নেওয়া পদক্ষেপের প্রতিবাদে হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় বেরিয়ে পড়ে। বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করার জন্য দুই হাজারেরও বেশি পুলিশ মোতায়েন করে।

ভয়েস অব আমেরিকা জানায়, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এই সপ্তাহান্তে বেশ কয়েকটি বিক্ষোভ নিষিদ্ধ করেছিল, যার মধ্যে ছিল স্টুটগার্ট ভিত্তিক কোয়ার্ডেনকার আন্দোলনের একটি অংশ। বার্লিনে বিক্ষোভকারীরা সেই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাস্তায় নেমে আসে।

বার্লিন পুলিশ বলেছে, বিক্ষোভকারীরা পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে আমাদের সহকর্মীদের বের করে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল। অগত্যা ঝাঁজালো পদার্থ বা ব্যাটন ব্যবহার করতে হয়। পুলিশ লাউডস্পিকারের মাধ্যমে আগেই সতর্ক করেছিল, প্রতিবাদকারীরা ছত্রভঙ্গ না হলে তারা জলকামান ব্যবহার করবে।
প্রতিবেশী দেশের তুলনায় জার্মানিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার কম হলেও গত কয়েক সপ্তাহে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণ নতুন করে বৃদ্ধি পেয়েছে। রবিবার ২০৯৭টি নতুন সংক্রমণের খবর পাওয়া যায়, যা আগের রবিবারের তুলনায় ৫০০-এর বেশি।

কোয়ারডেনকার জার্মানির সবচেয়ে দৃশ্যমান লকডাউনবিরোধী আন্দোলন, বার্লিনে হাজার হাজার লোককে বিক্ষোভে উদ্বুদ্ধ করেছে। এই আন্দোলন ডান ও বাম উভয় মতবাদের লোককে একত্রিত করেছে, যাদের মধ্যে টিকা বিরোধী, করোনাভাইরাস অস্বীকারকারী, ষড়যন্ত্র তত্ত্ববিদ এবং ডান চরমপন্থী গ্রুপের লোকজনও রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •