আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ক্ষমতা দখলের ছয় মাস নিজেকে মিয়ানমারের প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন দেশটির সামরিক জান্তা প্রধান মিন অং হ্লাইং। এছাড়া জরুরি অবস্থা বাড়ানোরও ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

রোববার টেলিভিশনে এক রেকর্ড ভাষণে মিন অং হ্লাইং বলেন, আগামী দুই বছরের মধ্যে নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত বর্ধিত জরুরি অবস্থার অধীনে তিনি দেশটির নেতৃত্ব দেবেন। খবর এসোসিয়েট প্রেসের

ভাষণে তিনি বলেন, ‘আমাদের অবশ্যই একটি অবাধ ও সুষ্ঠু বহুদলীয় সাধারণ নির্বাচন আয়োজনের পরিস্থিতি তৈরি করতে হবে। আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। আমি সুষ্ঠুভাবে বহুদলীয় সাধারণ নির্বাচনের অঙ্গীকার করছি।’

এছাড়া পৃথক এক ঘোষণায় সামরিক সরকার ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকার’ এবং মিন অং হ্লাইংকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি অং সান সু চির নির্বাচিত সরকারের হটিয়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে মিয়ানমারের সামরিক জান্তা। তখন জেনারেলরা বলেন, ২০০৮ সালের সামরিক সংবিধানের অধীনে এই উদ্যোগের অনুমতি দেওয়া আছে। সামরিক বাহিনী দাবি করে, গত বছরের জাতীয় নির্বাচনে সু চির দল ভোপে জালিয়াতির মাধ্যমে জয় অর্জন করেছে। তবে, এই অভিযোগের কোনো বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ দেয়নি তারা।

সম্প্রতি সামরিক সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করেছে এবং একটি নতুন নির্বাচন কমিশন নিয়োগ দিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •