এম. এ আজিজ রাসেল :
চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. কামরুল হাসান বলেছেন, টানা ভারী বর্ষণে কক্সবাজারের ৫১টি ইউনিয়ন পানির নিচে রয়েছে। এতে পানিবন্দি হয়ে আছে ৫৫ হাজার মানুষ। বন্যা কবলিত এসব মানুষের জন্য ১৫০ মে. টন চাল ও নগদ ১০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বরাদ্দ আরও বাড়ানো হবে। সরকারের পাশাপাশি যার যার অবস্থান থেকে বন্যা কবলিত মানুষের পাশে এগিয়ে আসতে হবে।

বৃহস্পতিবার বিকালে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পর্যটন কর্মীদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, পানিবন্দি মানুষকে বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে আনা হয়েছে। দেওয়া হচ্ছে খাবার। পাহাড় ধসে ও বানের পানিতে নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দিয়েছে জেলা প্রশাসন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত দুর্যোগ কবলিত মানুষের জন্য কাজ করা হবে। এছাড়া বন্যা পরবর্তী ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ করে স্বাস্থ্য সেবা, রাস্তা-ঘাট, কৃষি, মৎস্য, লবণ, ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ সংস্কার করা হবে।

জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক শ্রাবস্তী রায়, সিভিল সার্জন ডা. মাহবুবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আমিন আল পারভেজ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জাহিদ ইকবাল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (মানবসম্পদ ও ব্যবস্থাপনা) মো. নাসিম আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বিভীষণ কান্তি দাশ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায়, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মং এনুং মারমাসহ বিভিন্ন দপ্তরের পদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •