মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু,
কক্সবাজারের রামুর গর্জনিয়া-কচ্ছপিয়ায় গত সোমবার সন্ধ্যা থেকে টানা বৃষ্টিতে এলাকার নিম্ন অঞ্চল প্লাবিত হয়ে কয়েক হাজার মানুষ পানি বন্দী হয়ে পড়েছে।

এ কারণে জনসাধারণের মাঝে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এতে কৃষকের শাক-সবজি নষ্ট ও অগ্রিম রোপিত ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার আশংকা করেছে সচেতন মহল।

প্রবল বর্ষণে ও উপর থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে বাঁকখালী নদীর পানি বিপদ সীমানার উপরদিয়ে অতিবাহিত হওয়া এ এলাকায় মঙ্গলবার বন্যার পানি বেড়ে দুই ইউনিয়নের অধিকাংশ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, সোমবার থেকে টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে এ দুই ইউনিয়নে তিতার পাড়া, নতুন তিতার পাড়া, ডিককুল, চাঁকমারকাটা, মিয়াজিপাড়া,ফাক্রিকাটা, হাজির পাড়া,ক্যায়জর বিল,ডাক ভাংঙ্গাসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বাড়ি ঘর ও কৃষকের শাক সবজিসহ অগ্রিম রোপন করা ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশংকা করছে সচেতন মহল। অপরদিকে, বন্যায় প্লাবিত হয়ে গর্জনিয়া-কচ্ছপিয়ার প্রধান সড়ক গুলোতে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। অনেক মানুষ ইউনিয়ন পরিষদে,সাইক্লোন শেল্টারে নিরাপদ আশ্রয়ে রয়েছে। এলাকার অনেক মানুষকে তাদের বিভিন্ন মালামাল ও গবাদিপশু নিরাপদ স্থানে নিয়ে যেতে দেখা গেছে। তবে বৃষ্টি যদি এভাবে আরো হয়তাহলে পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হবে।

এদিকে নৌকা যোগে বন্যা কবলিত এলাকায় খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ছুটে আসেন রামু উপজেলার আলোচিত মানবিক নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রণয় চাকমা। তিনি বন্যায় কবলিত এলাকার ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে তৎখানিক ত্রাণ বিতরণ করেন। এসময় ছিলেন গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ ফরহাদ আলী।এছাড়াও কচ্ছপিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু মোঃ ইসমাইল নোমান, সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আমিন কোম্পানি ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও তরুন সমাজসেবক নাছির উদ্দীন সিকদার সোহেল এ তিন নেতা কক্সবাজার সদর রামু আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল এমপির পক্ষে বন্যা কবলিত পরিবারের মাঝে চাল, শুকনো খাবার বিতরণ করেছেন। সোহেল সিকদার বলেন, মানবতার সেবায় নিয়োজিত কচ্ছপিয়াবাসীর যেকোনো দুর্যোগে মাননীয় সংসদ আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপির নির্দেশে যেকোনো দুর্যোগে সাধারন মানুষের পাশে আছি, থাকবো।

কচ্ছপিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু মোঃ ইসমাইল নোমান বলেন, তিনি ও মাননীয় সংসদ আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপির নির্দেশে যেকোনো দুর্যোগে সাধারন মানুষের পাশে ছিলাম এখনো আছি ভবিষ্যতেও থাকবো।

গর্জনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি হাফেজ আহামদ জানান, তিনি পানি বন্ধী মানুষদের নিরাপদ স্থানে আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •