সংবাদদাতাঃ
রামু উপজেলার গর্জনিয়া শাহ বদর আউলিয়া (রঃ) মাদ্রাসা হেফজখানা ও এতিমখানার হাফেজ শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের দেয়া উপহার সামগ্রী
শনিবার (২৪ জুলাই) সকালে এতিম শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেন প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা সাংবাদিক মোঃ নেজাম উদ্দিন।

রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের জুমছড়ি মরিচ্যাচর গ্রামে প্রতিষ্ঠিত শাহ বদর আউলিয়া (রঃ) মাদ্রাসা হেফজখানা ও এতিমখানার ৫০জন শিশু তে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপহার সামগ্রী পেয়ে আনন্দিত হয়েছে।

কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে সংশ্লিষ্টদের প্রতি।

ঈদ সামগ্রী বিতরণকালে বিশেষ অতিথি ছিলেন- মরিচ্যাচর সমাজ কমিটির সর্দার মোঃ ই্উনুস, শাহাব মিয়া।

প্রতিষ্ঠাতা মোঃ নেজাম উদ্দিন জানান, গর্জনিয়া শাহ বদও আউলিয়া (রঃ) মাদ্রাসা হেফজখানা ও এতিমখানা ২০১৪ সালে আমাদের প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠিত হয়। পরে গ্রামবাসির আন্তরিক সহযোগিতায় দিনদিন প্রতিষ্ঠানটি বড় হতে চলেছে।
লতডাউনের আগে রামু উপজেরা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রণয় চাকমা এই অসহায় শিশুদের কক্সবাজর সমুদ্র দেখার সুযোগ করে দিয়েছিলেন।

গত রোজার ঈদে শিশুদের জন্য কাপড় পাঠিয়েছিলেন ইউএনও।

উপজেলা প্রশাসনের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ।

উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হাফেজখানার প্রধান শিক্ষক হাফেজ মাওলানা নুরুল কবির।

মহতী উদ্যোগের সাথে সম্পৃক্ত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণয় চাকমা।

সেইসঙ্গে শিক্ষা বিস্তারে তিনি সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •