মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

আগামী আগস্টের দ্বিতীয় সপ্তাহে উখিয়া-টেকনাফের ৩৪ টি শরনার্থী ক্যাম্পে অবস্থান করা রোহিঙ্গাদের করোনা ভ্যাকসিনের আওতায় আনা হচ্ছে। আপাতত ৫৫ বছর ও তদুর্ধ বয়সী শরনার্থীদের এ ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে।

রোহিঙ্গা শরনার্থী ব্যবস্থাপনায় সংশ্লিষ্ট বিশ্বস্থ একটি সুত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

সুত্রমতে, চীনের তৈরি সিনোফার্মার ভ্যাকসিন রোহিঙ্গাদের দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ। ৫৫ বছর ও তদুর্ধ বয়সী শরনার্থীর সংখ্যা ৩৪ টি ক্যাম্পে এক লক্ষের বেশি হবেনা।প্রাথমিকভাবে ২ লক্ষ ডোজ টিকা রোহিঙ্গাদের জন্য কক্সবাজারে আনা হবে। রোহিঙ্গাদের ভ্যাকসিনের আওতায় আনতে  বয়সসীমা পর্যায়ক্রমে কমিয়ে আনা হবে বলে জানিয়েছে সুত্রটি। শরনার্থী ক্যাম্প গুলোতেই নির্ধারিত বয়সের রোহিঙ্গাদের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। এজন্য ক্যাম্প গুলোর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে প্রয়োজনীয় টিকা সেন্টার স্থাপনের কাজ চলছে।

প্রসঙ্গত, করোনার প্রকোপের শুরু থেকে গত প্রায় ১৬ মাসে কক্সবাজার জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা ১৬৮ জনের মধ্যে ২৭ জন রোহিঙ্গা শরনার্থী। তারমধ্যে, উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প গুলোতে ২৫ জন এবং টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্প গুলোতে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুরু থেকে গত ২৩ জুলাই পর্যন্ত মোট ৫২ হাজার ৪৮৬ জন রোহিঙ্গা শরনার্থীর দেহের নমুনা টেস্ট করে ২ হাজার ৩৭৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •