সিবিএন ডেস্ক:
দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর (হিলি) উপজেলায় রোহিঙ্গা বলে ডাকায় ইলিয়াস হোসেন (৩৬) নামে এক মাইক্রোচালককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) সকাল ১১টায় মাইক্রোস্ট্যান্ডে সংঘবদ্ধ কয়েকজন মিলে কুপিয়ে তাকে জখম করে। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (২৪ জুলাই) সকালে মারা যান তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাকিমপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ।

নিহত ইলিয়াস হোসেন (৩৬) হাকিমপুর উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের মৃত মহসিন আলীর ছেলে।

হাকিমপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ আরটিভি নিউজকে জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক মাইক্রোচালককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে ৫ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় মামলা দায়ের করেছে। আমরা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

তিনি আরও জানান, আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) প্রতিদিনের ন্যায় বাড়ি থেকে হিলিতে যাওয়ার পথে পাশের গ্রামের (বৈগ্রাম) আক্তারুজ্জামানকে ঠাট্টা করে রোহিঙ্গা বলে ডাক দেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হন। পরে স্থানীয় কয়েকজন যুবককে নিয়ে মাইক্রোস্ট্যান্ডে গিয়ে ইলিয়াসকে এলোপাতাড়ি মারধর করেন। পরে সে গুরুতর জখম হলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেলে পাঠান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু টাকার অভাবে পার্শ্ববর্তী বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা চলছিল। সেখানে শনিবার (২৪ জুলাই) সকালে মারা যান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •