মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

গত ১২ জুলাই থেকে গত ২৩ জুলাই পর্যন্ত ১২ দিনে কক্সবাজারে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৩২ জনের প্রাণহানি হয়েছে। গত ১১ জুলাই পর্যন্ত কক্সবাজার জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ১৩৬ জন। আর ২৩ জুলাই পর্যন্ত এ সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে
মোট ১৬৮ জনে।

কক্সবাজার সিভিল সার্জন অফিসের পরিসংখ্যান থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

করোনার প্রকোপের শুরু থেকে গত প্রায় ১৬ মাসে কক্সবাজার জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা ১৬৮ জনের মধ্যে ২৭ জন রোহিঙ্গা শরনার্থী। তারমধ্যে, উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প গুলোতে ২৫ জন এবং টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্প গুলোতে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় ২৩ জুলাই পর্যন্ত জেলায় মোট ১৬৮ জন প্রাণহানির মধ্যে, শুধু কক্সবাজার সদর উপজেলায় মৃত্যুবরণ করেছে ৭৭ জন।

এছাড়া, ২৩ জুলাই পর্যন্ত করোনাতে উখিয়া উপজেলায় ২৫ জন রোহিঙ্গা শরনার্থী সহ মোট মৃত্যুবরণ করেছে ৩৭ জন, চকরিয়া উপজেলায় মৃত্যুবরণ করেছে ১৯ জন, টেকনাফ উপজেলায় ২ জন রোহিঙ্গা শরনার্থী সহ মোট মৃত্যুবরণ করেছে ১৭ জন, রামু উপজেলায় মৃত্যুবরণ করেছে ৭ জন, পেকুয়া উপজেলায় মৃত্যুবরণ করেছে ৫ জন, মহেশখালী উপজেলায় মৃত্যুবরণ করেছে ৩ জন এবং কুতুবদিয়া উপজেলায় মৃত্যুবরণ করেছে ৩ জন।

একইসময়ে কক্সবাজার জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছে মোট ১৬ হাজার ৯৭ জন। মোট আক্রান্তের তুলনায় মৃত্যুর হার ১’২৯% ভাগ। একইসময়ে সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৪০ জন করোনা রোগী। আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৮১’০১% ভাগ।

সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য মতে, ঈদুল আজহার তৃতীয় দিনে গত ২৩ জুলাই একদিনে জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৮০ জন। এদিন নমুনা টেস্টের তুলনায় পজেটিভিটির হার ছিল শতকরা ২৯’৮৫ ভাগ।শুরু থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাব ও কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সমুহে র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট পদ্ধতিতে নমুনা টেস্ট করা হয়েছে মোট ১ লক্ষ ৮৫ হাজার ১৭৯ জনের।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •