বিশেষ প্রতিবেদক:
সাগরে মাছ ধরার সরকারি নিষেধাজ্ঞা শুক্রবার (২৩ জুলাই) শেষ হয়েছে। সব প্রস্তুতিতে নিয়েও নিম্নচাপের কারণে মাছ ধরতে সাগরে যেতে পারছে না জেলেরা। জাল, খাবার, ফিশিং বোটসহ অন্যান্য সরঞ্জাম সব প্রস্তুত। এখন অপেক্ষা শুধু সাগর শান্ত হওয়ার।

শনিবার (২৪ জুলাই) বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়।

ট্রলার মাঝি রমজান বলেন, ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে সাগরে নামার সব প্রস্তুতি থাকলেও সাগর উত্তাল। ২ থেকে ৩ দিন আরও অপেক্ষায় থাকতে হবে। যারা উপকূলের কাছাকাছি মাছ শিকার করেন তারা সাগরে নেমেছেন।

কক্সবাজারের আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান বলেন, সমুদ্রে ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত চলছে। আমরা যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। এখন তারা অনুমতি দেয়ার ক্ষেত্রে সমুদ্রের অবস্থা বিবেচনা করবেন।

এ বিষয়ে কক্সবাজার বোট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন বলেন, কক্সবাজার জেলায় গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে যায় এমন ৪০০টি ট্রলার রয়েছে। নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার দুই একদিন আগে থেকেই সাগরে মাছ ধরার সকল প্রস্তুতি শেষ করেছি। ট্রলারে কাঁচা বাজার, বরফ, জাল এবং জেলেদের অগ্রিম টাকা দেয়া সবই করা হয়। এজন্য গড়ে লাখ টাকা খরচ হয়ে গেছে।

তিনি আরও বলেন, সাগরে হঠাৎ নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার কারণে জেলেরা সাগরে যেতে পারছে না। সাগরে শান্ত হলেই যাবে। ততদিনে কাঁচাবাজার, বরফ নষ্ট হয়ে যাবে। এজন্য মৌসুমের শুরুতেই প্রতি ট্রলার মালিককে কমে ৫০ হাজার টাকা করে লোকসান গুণতে হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •