বিভিন্ন পত্রিকা এবং অনলাইন নিউজ এর সম্পর্কে প্রতিবাদ জানিয়েছেন চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য Saddam H Mito।

তার  প্রেরিত  প্রেস বিজ্ঞপ্তি এবং ফেইসবুক একাউন্টে প্রদত্ত প্রতিবাদ  নিচে তুলে ধরা হলো-

কক্সবাজার জেলায় বহুল প্রচারিত বিভিন্ন পত্রিকা/অনলাইন মিডিয়ায় আমাকে জড়িয়ে যে সংবাদ প্রচার হচ্ছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা,ভিত্তিহীন ও ভূয়া।

পেকুয়ায় সংঘটিত ঘটনায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত মার্শাল এর সাথে আমার সম্পর্ক থাকার কারণে আমি আজ এই পরিস্থিতির শিকার হলাম। আমাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মার্শালকে ধরিয়ে/খোঁজ করে দিতে অনবরত চাপ প্রয়োগের কারণে আমি মানসিকভাবে বিধ্বস্ত হয়ে গা ঢাকা দিতে বাধ্য হই।

কারণ আসলেই আমি তখনও জানতাম না এখনো জানি না তার অবস্থান সম্বন্ধে, সেখানে আমি কি করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে তাকে হাজির করে দিবো!!!!!

যে ছেলে নিজের জন্মদাতা পিতাকে জেল হাজতে প্রেরণেরমত বিপদে ফেলতে পারে,সে ছেলে কতবড় অমানুষ আপনাদের বিচার বুদ্ধি দিয়ে চিন্তা করে দেখুন।

কিন্তু আমারমত একটা নিরীহলোক কে কেন এইরকম অপপ্রচারের মধ্য দিয়ে হত্যা করতেছেন, ইসলাম ধর্মে আত্মহত্যা জায়েজ থাকলে এতক্ষণে আত্মাহত্যার করে ওপারে চলে যেতাম।

আমি একজন মুসলিম ঘরের সন্তান হিসেবে উপরওয়ালা আল্লাহ কে সাক্ষী রেখে বলছি প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে আমার ঐ ঘটনায় বিন্দুমাত্র সংশ্লিষ্টতা নাই।

আজ বা কাল মার্শাল গ্রেপ্তার হবেই। সেদিন হয়ত প্রমাণিত হবে আমি নির্দোষ ছিলাম সেটা,কিন্তু এখন যে অপপ্রচার ও অপবাদের মধ্যদিয়ে আমাকে যে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে ধ্বংস করে দিলেন এসবের দায়ভার কে বহন করবে……

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আমার অনুরোধ, মার্শালকে দ্রুত গ্রেফতার করে রিমান্ডের মাধ্যমে সব তথ্য সংগ্রহ করুন,সেখানে আমার এক বিন্দুপরিমাণ সংশ্লিষ্টতা পেলে আমাকে ক্রস ফায়ারের মাধ্যমে আমার শাস্তি নিশ্চিত করুন।

রাজনীতির কারণে অনেকের সাথে সম্পর্ক ও ছবি থাকে। তারমানে এই না যে,একজনের কৃতকর্মের ফল অন্যজনের ভোগ করতে হবে।

উপরে আল্লাহ্ একজন আছে,
উনিই প্রথম ও শেষ ভরসা

সত্য চিরন্তন সত্যই হবে……..

সবাই দোয়া করবেন যাতে মার্শাল দ্রুত গ্রেপ্তার হয় এবং আমারমত নিরীহ মানুষ আপনাদের মাঝে ফিরে আসতে পারি।

 

সিবিএন/ বিজ্ঞাপন

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •