মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে কক্সবাজারে কর্মরত সম্মানিত চিকিৎসক, নার্স, টেকনিশিয়ান, ওয়ার্ডবয়, স্বাস্থ্য বিভাগীয় কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সকল স্বাস্থ্যকর্মী’কে শুভেচ্ছা ও ঈদ মোবারক জানিয়েছেন কক্সবাজারের সিভিল সার্জন ডা. মাহবুবুর রহমান।

সিভিল সার্জন বলেন, কোরবানি আমাদের মাঝে আত্মদান ও আত্মত্যাগের মানসিকতা সঞ্চারিত করে, আত্মীয়-স্বজন ও পাড়া-প্রতিবেশীর সঙ্গে সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে নেয়ার মনোভাব ও সহিষ্ণুতার শিক্ষা দেয়। সিভিল সার্জন ডা. মাহবুবুর রহমান আরো বলেন, এ বছর এমন একটা সময়ে ঈদুল আজহা উদযাপিত হচ্ছে-যখন কক্সবাজারসহ পুরো দেশ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে বিপর্যস্থ। করোনার কারণে জনগণের জীবন ও জীবিকা আজ কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি। জীবন বাঁচানো প্রথম অগ্রাধিকার হলেও জীবন বাঁচিয়ে রাখতে জীবিকার গুরুত্বও অনস্বীকার্য। কঠিন এ সময়ে তিনি কক্সবাজার জেলার আপামর জনগণের প্রতি কোরবানির মর্মার্থ অনুধাবন করে সংযম ও ত্যাগের মানসিকতায় উজ্জীবিত হয়ে অতিমারিতে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদেরও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান।

পুরো দেশের মতো কক্সবাজার জেলায় চলমান কোভিড-১৯ অতিমারিতে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনে সকলে স্বাস্থ্য বিধি মেনে ঈদের জামাত ও পশু কোরবানি করবেন বলে সিভিল সার্জন ডা. মাহবুবুর রহমান প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

চলমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে চিকিৎসক, নার্স, টেকনিশিয়ান, ওয়ার্ডবয়, স্বাস্থ্য বিভাগীয় কর্মকর্তা-কর্মচারী, সকল স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী, সশস্ত্রবাহিনী, সাংবাদিক, ব্যাংকার ও পরিচ্ছন্নতাকর্মীসহ যাঁরা জীবন বাজি রেখে মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন, সকল সম্মুখযোদ্ধাদের তিনি আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। সিভিল সার্জন বলেন, পবিত্র ঈদুল আজহা সবার জন্য বয়ে আনুক কল্যাণ, সবার মধ্যে জেগে উঠুক ত্যাগের আদর্শ। তিনি বলেন, আমরা যেন ঘরে পরিবার-পরিজন নিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করি এবং আল্লাহর দরবারে বিশেষ দোয়া করি এই সংক্রমণ থেকে আমরা সবাই যেন দ্রুত মুক্তি পাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •