অনলাইন ডেস্ক: প্রতিটি ক্লাস্টারের সামনে ৮ থেকে ১০টি করে গরু বাঁধা। নোয়াখালী দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচরে অবস্থান করা রোহিঙ্গাদের জন্য সরকারের উপহার এসব গুরু। খামারিদের কাছ থেকে কিনে আনা এসব গরুর বাড়তি যত্ন নিতে একটি টিম কাজ করছে।

ভাসানচরে অবস্থান করা হাতিয়া উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা মো. ফখরুল ইসলাম আরটিভি নিউজকে বলেন, রোহিঙ্গাদের কোরবানির জন্য সরকারিভাবে ৩২০টি গরু বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রতিদিন ট্রলারযোগে হাতিয়ার চেয়ারম্যান-ঘাট হয়ে গরু আসছে। এরই মধ্যে ১৯ জুলাই সকাল পর্যন্ত ২০০টি গরু ভাসানচরে পৌঁছেছে।

ভাসানচরে আসার পরপরই গরু গুলো আগামী কয়েকদিন পরিচর্যার জন্য রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন ক্লাস্টারে বিতরণ করে দেয়া হয়। উপজেলা প্রাণী সম্পদ দপ্তরের একটি টিম এসব গরু দেখা শুনা করার জন্য ভাসানচরে অবস্থান করছে।

শরণার্থী বিষয়ক কমিশনরে অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ মোয়াজাম হোসেন  বলেন, এখন ডাটাবেস তৈরি করা হচ্ছে। প্রতিটি ক্লাস্টারে একটি করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি গরুর পরিচর্যা করবে ঈদের দিন পর্যন্ত। পশু কোরবানি হওয়ার পর এই কমিটির সদস্যরা প্রতিটি পরিবারের মাঝে মাংস পৌঁছে দেয়ার কাজ করবে।

  • আরটিভি
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •