শাহেদুল ইসলাম মনির, কুতুবদিয়া:
সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ ধরতে যাওয়ায় কুতুবদিয়ায় ৪ বোট মালিককে ৫১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রবিবার (১৮ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দরবার ঘাট এলাকায় অভিযান চালানো হয়।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- আক্কাস আলী ১৮ হাজার, জহির উদ্দিন ১০ হাজার, আনসার ১০ হাজার এবং মায়ের দোয়া বোট মালিকে ১৩ হাজার টাকা।

কোস্ট গার্ডের সহযোগিতায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন কুতুবদিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ডাঃ মুহাম্মদ নুরে জামান চৌধুরী।

অভিযানে বোট থেকে জব্দকৃত বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ২৪০ মণ মাছ প্রকাশ্যে নিলামে ৪ লাখ ২২ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়।

মৎস্য কর্মকর্তা মুহাম্মদ আইয়ুব আলী জানান, বিক্রিত টাকা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমা করা হয়েছে সরকারি কোষাগারে। সরকারী আদেশ প্রতিপালনে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, দেশের সামুদ্রিক জলসীমায় ৬৫ দিন দেশের সব ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

গত ১৯ মে মধ্যরাত থেকে এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হয়েছে। আগামী ২৩ জুলাই পর্যন্ত চলবে এই নিষেধাজ্ঞা। এই সময়ে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করবে নৌবাহিনী, নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ড।

দেশের সামুদ্রিক জলসীমায় মাছের সুষ্ঠু প্রজনন, উৎপাদন, সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ সংরক্ষণ এবং টেকসই মৎস্য আহরণের জন্য সামুদ্রিক মৎস্য আইন, ২০২০-এর ধারা ৩-এর উপধারা-২-এর ক্ষমতাবলে এ নিষেধাজ্ঞার প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। গত ১৩ এপ্রিল এ প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এই ৬৫ দিন সামুদ্রিক জলসীমায় যেকোনো প্রজাতির মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •