আমান উল্লাহ , মক্কা থেকে:

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে সীমিত পরিসরে ও কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে সৌদি আরবে আজ রবিবার (১৮জুলাই) থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা। গতবারের মতো এবারও অন্য দেশ থেকে কেউ অনুমতি না পেলেও সৌদি আরবে থাকা ১৫০টি দেশের নাগরিকসহ এবারের হজে অংশ নেওয়ার সুযোগ পেয়েছে ৬০ হাজার মানুষ।

ইসলামের ৫ স্তম্ভের একটি হজ। পবিত্র মক্কায় হাজীদের বায়তুল্লাহ জিয়ারত, আরাফাতের ময়দানে অবস্থানসহ আনুষঙ্গিক আরও কিছু আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে হজ পালিত হয়। বিত্তবান ও শারীরিক সামর্থ্যবান মুসলমানের ওপর জীবনে একবার হজ পালন করা ফরজ এবং প্রতি বছর কোরবানি দেওয়া ওয়াজিব।

সৌদি আরবের স্থানীয় সময় শনিবার রাত ১০ টা থেকে মক্কায় পৌঁছাতে শুরু করেছেনএবারের হজে অনুমতি পাওয়া মুসল্লিরা। ৫ লাখ ৪০ হাজার আবেদনকারীর মধ্য থেকে মাত্র ৬০ হাজার মুসল্লি এবার হজে অংশ নেওয়ার সুযোগ প্যেছেন। হজের অনুমতি পাওয়া সবাই কোভিড-১৯ টিকার দু’টি ডোজই নিয়েছেন বলা জানা গেছে। বড় ধরনের স্বাস্থ্য জটিলতা নেই, যারা সুযোগ পেয়েছেন তাদের সবার বয়স ১৮ থেকে ৬৫ বছর পর্যন্ত।

আল-আরাবিয়ার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে-বিভিন্ন স্থানে হাজিদের সেবা দিতে ১৭৭০টি বাস ও ৪৫টি স্ট্রোক সেন্টার থাকবে। জাবালে রহমত এলাকায় ২৩টি ও মিনা প্রান্তরে থাকবে ২২টি। এছাড়াও ৪২টি নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র থাকবে। হজের স্থানগুলোতে চিকিৎসাসেবা দিতে কাজ করবে ৩২টি চিকিৎসক দল ও ৩৬টি অ্যাম্বুলেন্স। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি থাকছে ১৫ হাজার সেবাকর্মী ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •