রকিয়ত উল্লাহ, মহেশখালী:
মহেশখালীর কালারমারছড়ার উত্তর নলবিলার দরগাহঘোনা এলাকায় একটি বসতবাড়ির আঙ্গিনার মাটি খুঁড়ে ২টি দেশিয় অস্ত্র ও ২টি কার্তুজ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৬ জুলাই) দিবাগত রাতে মহেশখালী-কুতুবদিয়ার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) জাহেদুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ভোর চারটার দিকে রুহুল আমিন নামের একজনকে আটক করা হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়, গত ৩০জুন স্বারাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অস্ত্র ও গোলাবারুদ জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করে আলোর পথে আসা একারামকে স্থানীয় জনৈক আব্দু মোনাফের পুত্র কবিরের নেতৃত্বে হত্যা করে মাতারবাড়ির কোহেলিয়া নদীতে ফেলে দেয়।

পরের দিন সকালে কবিরকে জনগণের সহয়তায় গ্রেফতার করে পুলিশ। তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে হত্যার কথা প্রাথমিকভাবে স্বীকার করে। স্বীকারোক্তির মাধ্যমেই রাতভর অভিযান চালিয়ে তার বাড়ির আঙ্গিনার মাটির নিচ থেকে ২টি এলজি বন্দুক ও ২টি তরতাজা গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।

মহেশখালী-কুতুবদিয়ার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) জাহেদুল ইসলাম বলেন, আলোচিত একারাম হত্যার প্রধান আসামি কবিরের রিমান্ডের পর তার স্বীকারোক্তি মতে অভিযান চালানো হয়। হত্যার সাথে যারা জড়িত, সবাইকে আইনের আওয়াতায় আনা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •