মোঃ আকিব বিন জাকের, মহেশখালী:

গত ১৩ ই জুলাই (মঙ্গলবার) মহেশখালীর কুহেলিয়া নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া মাহবুবের (২৮) লাশ পাওয়া গেছে।

দীর্ঘ ২৮ ঘন্টা খোঁজাখুজির পর ১৫ ই জুলাই (বৃহস্পতিবার) কুহেলিয়া নদীর তীর হতে উদ্ধার করে নিখোঁজ মাহমুদের লাশ উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নের আওতাধীন  ৫ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ ঝাপুয়া গ্রামে তার নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে স্বজনরা। এরপর বিকাল ০৪ টার দিকে ঝাপুয়া ঈদগাহ ময়দানে জানাজার নামাজ সম্পন্ন করে সমাধিস্থ করা হয় মাহবুবের লাশ।

মাহবুব ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের স্থানীয় বাসিন্দা মোহাম্মদ হোসেনের পুত্র এবং জোনাব আলীর নাতি (দৌহিত্র)।

উল্লেখ্য, নিহত মাহবুব দীর্ঘদিন ধরে ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের আওতাধীন উত্তর নলবিলা গ্রামের মাঝের পাড়ার তার শশুর নুরুল ইসলামের বাড়িতে বসবাস করে আসছে।

গত ১৩ ই জুলাই (মঙ্গলবার) আনুমানিক সন্ধ্যা ৭ টার দিকে মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প সংলগ্ন কোহেলিয়া নদীর দারাখালের মোহনায় মাহবুব তার তিন সঙ্গী আবু তালেব, উকিল আহমেদ এবং আলীর সাথে মাছ ধরতে গেলে নদীতে নিখোঁজ হয়ে যায় সে। সাথে থাকা সঙ্গীরা পরদিন সকাল ১০ টার দিকে তার শশুরবাড়িতে মাহবুবের নিখোঁজের খবরটি জানালে স্বজনরা নদীতে মাহবুবের লাশের সন্ধানে নেমে পড়ে। এক পর্যায়ে ১৫ ই জুলাই সকাল ০৮ দিকে কুহেলিয়া নদীর তীর হতে তাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে তারা।

এদিকে মাহবুবের মৃত্যুতে গোটা এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া। পরিবার এবং স্বজনদের মধ্যে পড়েছে কান্নার রোল। ২ বছর বয়সের একটি কন‍্যা শিশু এবং ৮ মাস বয়সের একটি ছেলে সন্তান নিয়ে দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হয়ে পড়েছে তার বিধবা স্ত্রী। দরিদ্র মা(মাহবুবের স্ত্রী) ভূগছেন দুই সন্তান নিয়ে অনিশ্চয়তায়। এখন তাদের আহার জোগানোর মতো নেই কোনো সহায় সম্বল। দুই সন্তান নিয়ে পেটেভাতে থাকতে উপজেলা প্রশাসন এবং সামর্থ্যবানদের নিকট সহযোগিতা কামনা করেছেন স্বামীহারা দরিদ্র মুবিনা আক্তার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •