সিবিএন ডেস্ক:
করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা পেতে দেশে প্রায় ১ কোটি মানুষ নিবন্ধন করেছেন। স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, বুধবার (১৪ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ৯৯ লাখ ৬৮ হাজার ২৫৭ জন মানুষ ‘সুরক্ষা’ অ্যাপ ও ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন।

দেশে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে টিকার জন্য গত ২৬ জানুয়ারি নিবন্ধন শুরু হয়। গত ৭ ফেব্রুয়ারিতে দেশে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। শুরুতেই অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত ও ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটের প্রস্তুতকৃত কোভিশিল্ড টিকা দেওয়া হয়। তবে ভারত টিকা রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা দিলে ক্রমেই এ টিকার মজুত কমে আসে। আর তাতে করে গত ২ মের পর টিকার জন্য নিবন্ধন প্রক্রিয়া স্থগিত করা হয়।

স্থগিতের আগে কোভিশিল্ড টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৫৮ লাখ ২০ হাজার ৩৩ জনকে। আর দ্বিতীয় ডোজ নেওয়া সম্পন্ন করেছেন ৪২ লাখ ৯৬ হাজার ৭৩ জন। বাকীরা এখনও দ্বিতীয় ডোজের অপেক্ষায় রয়েছেন।

পরে চীনের সঙ্গে টিকার জন্য নতুন করে চুক্তি এবং কোভ্যাক্স সুবিধার আওতায় ফাইজার-বায়োএনটেকের এবং মডার্নার টিকা আসায় আবার নিবন্ধন শুরু হয় গত ৭ জুলাই থেকে। গত ১২ জুলাই জেলা-উপজেলা পর্যায় চীনের সিনোফার্মের টিকা আর দেশের ১২ সিটি করপোরেশন এলাকায় মডার্নার টিকা দেওয়ার মাধ্যমে টিকাদান কর্মসূচি ফের শুরু হয়েছে।

এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার–বায়োএনটেকের টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৪২ হাজার ৮৩৩ জনকে। সিনোফার্মের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৫ লাখ ৫ হাজার ২৩০ জনকে আর দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ২ হাজার ২৫৯ জনকে। আর গত মঙ্গলবার দেশের ১২ সিটি করপোরেশন এলাকায় মডার্নার টিকা দেওয়া হয়েছে ৬৬ হাজার ৪০৫ জনকে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •