সিবিএন ডেস্ক:
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, ‘দেশের সংবিধান অনুযায়ী যে কেউ রাজনৈতিক দল করতে পারে। তবে একজন ব্যক্তি একসাথে দুটি দল করতে পারেন না। রাজনৈতিক দল কেউ করলেই হবে না। নির্বাচন কমিশন থেকে সেই দলের নিবন্ধন নিতে হবে।’ রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ঘোষণা করার জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, কে কাকে কী ঘোষণা দিয়েছে তা জানি না। যে কেউ যেকোনো ঘোষণা দিতে পারে।

এর আগে বুধবার (১৪ জুলাই) বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কে জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রতিষ্ঠাতা এইচ এম এরশাদের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তার ছেলে এরিক এরশাদ বেগম রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এবং বিদিশা ও শাহাদাতকে পার্টির কো-চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন। পরে কাকরাইলে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এরশাদের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত দুঃস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে জিএম কাদের তার প্রতিক্রিয়া জানান। দলটির ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার উদ্যোগে এ খাবার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

জিএম কাদের বলেন, করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে সরকার ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। ভ্যাকসিনের অভাবে জনগণ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে। গ্রামের জনগণ ভ্যাকসিন পাচ্ছে না। সরকারি হাসপাতালগুলোতে ডাক্তার নেই, নার্স নেই, ওষুধ নেই। চিকিৎসার অভাবে প্রতিদিন মানুষ মারা যাচ্ছে।

তিনি বলেন, মেগা উন্নয়নের কথা বলা হচ্ছে, অথচ জনগণ চিকিৎসা, খাদ্য নিরাপত্তা পাচ্ছেন না। মানুষ মারা যাচ্ছে আর সরকার উন্নয়নের কথা বলছে। আমরা এমন উন্নয়ন চাই না। এমন দেশ চাই না।

ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, জেনারেল এরশাদ একজন সামরিক ব্যক্তি হয়েও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে গেছেন। আজকে দেশের গণতন্ত্র নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। দেশের নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ।

তিনি বলেন, একদিকে মেঘা প্রকল্পের কথা বলা হচ্ছ। আবার বলা হচ্ছে টাকার কোনো সমস্যা নেই। তাহলে করোনা পরিস্থিতিতে কেন ২০ হাজার কোটি টাকা অসহায় মানুষদের জন্য দেওয়া যাবে না। তাই বলতে চাই, কালক্ষেপণ না করে এখনই বাস্তব পদক্ষেপ নিন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •