সিবিএন:

তাজরিবা আলম শিফা। কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ভেওলা মানিকচর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের দিয়ার চর গ্রামের শাহ্ আলম ও সেলিনা সুলতানা দম্পত্তির একমাত্র মেয়ে।
এক্টোডারমাল নিউরো টিউমার ও ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছে সদা হাস্যোজ্বল মেধাবী ছাত্রী শিফা।

শিফা স্থানীয় অনুশীলন একাডেমি বিদ্যালের মেধাবী ছাত্রী এবং ২০২১ ইং ব্যাচের এসএসসি পরীক্ষার্থী। সবসময় হাস্যোজ্বল ছোট্ট শিফা বাবা-মায়ের খুব আদরের মেয়ে। ছিল দু-চোখ ভরা স্বপ্ন, যেন বড় হয়ে মানুষের সেবা করবে। কৃতিত্বের সাথে নিয়মিত পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছিলো।
সে সরকারী ও বেসরকারী বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে অনেক গুলো মেধা বৃত্তিও অর্জন করেছে। কিন্তু যাকে বলে ভাগ্যের নির্মম পরিহাস! জীবনের শুরুতেই ভালো-মন্দ বুঝে উঠার আগেই এই প্রাণচঞ্চল ছোট্ট শিফার শরীরে ধীরে ধীরে দানা বাঁধতে শুরু করে বিরল একটি জটিল রোগ।

এই মেধাবী শিক্ষার্থী এখন জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে!
যে সময়ে তার বই-খাতা নিয়ে পড়ে থাকার কথা;সে কিনা এখন হাসপাতালের বেডে অসহনীয় যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। এ যেন ভাবতে অবাক লাগে। সবার আদরের ফুটফুটে অমায়িক মেয়েটির আজ ঠাঁই হল হাসপাতালের বিছানায়।

শিফার অশ্রুসিক্ত চোখ দু’টি শুধু ফ্যাল ফ্যাল তাকিয়ে বার বার বাঁচার আকুতি জানাচ্ছে। মেয়ের এহেন অসহায়ত্ব ও করুণ অবস্থা দেখে বাবা-মা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও এখন রাজ্যের হতাশায় এক প্রকার মানষিক বিপর্যস্ত। তাদের একমাত্র মেয়েকে বাঁচাতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। হাসপাতাল,ডাক্তার এই চেম্বার থেকে ওই চেম্বারে নানান পরীক্ষা নিরীক্ষার রিপোর্ট হাতে দৌড়াদৌড়িতে হাঁপিয়ে গিয়ে একপ্রকার তারাও কাহিল হয়ে গেছে।

স্থানীয় ডাক্তারদের দেখানোর পর কক্সবাজার মেডিকেলে স্থানান্তর। কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সব ধরনের পরীক্ষা নিরীক্ষার পর ধরা পড়ে ম্যানিনজিওমা টিউমার। এখানে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তত্বাবধানে কিছুদিন চিকিৎসা চলার পর কোনরূপ শারীরিক উন্নতি না হওয়ায় গত ২ মে অপারেশন করা হয়।

অপারেশনের পর সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল। কিন্তু বিধিবাম, বাইউপসি টেস্টে নিউরো এক্টোডারমাল টিউমার এখন ক্যান্সারে রূপ নিয়েছে।
এদিকে শিফা’র বাবা জনাব শাহ্ আলমের সহায় সম্বল সব শেষ। তাকে কিছু মানবিক মানুষ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। সব মিলিয়ে ধার কর্জ করে ইতোমধ্যে প্রায় সাত লক্ষ টাকা পর্যন্ত মেয়ের চিকিৎসায় খরচ করে ফেলেছেন।

দিন দিন শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটাে ব্যাথায় অবিরত চিৎকার ও কান্নাকাটি করতে থাকায় গত ১২ জুলাই শিফাকে ঢাকার কল্যাণপুরে অবস্থিত বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হসপিটালে ভর্তি করা হয়। ওই হাসপাতালে চতুর্থ তলায়, ওয়ার্ড নং এল ৫, বেড – নং ১৬ তে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তত্বাবধানে আছেন।

শিফা’র অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয় পর্যায়ে তাই অতিদ্রুত তাকে জরুরি ভিত্তিতে অপারেশন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ডাক্তার গন। এমন জটিল ও ঝুকিপূর্ণ এবং ব্যয়বহুল অপারেশন ও চিকিৎসায় আনুমানিক ১০ থেকে ১২ লক্ষ টাকার প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন ডাক্তারগণ ও হাসপাতাল কতৃপক্ষ।

ক্যান্সার আক্রান্ত মেধাবী ছাত্রী শিফা, তার অসহায় বাবা শাহা আলমের একার পক্ষে এমন ব্যয়বহুল অপারেশনের টাকা বহন করা সম্ভবপর না হওয়ায় সমাজের বিত্তবান ও মানবিক মানুষ গুলোর প্রতি বাঁচার আকুতি জানিয়ে সাহায্য ও হযোগিতার জন্য বিনীত ভাবে আহ্বান জানিয়েছেন।

মানবিক সহায়তা পাঠাতেঃ
01915707749 ( বিকাশ পারসোনাল, রকেট, নগদ)
Bank Account details ;
A/C No – 1511101272091001,
Brac Bank Limited.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •