ছোটন কান্তি নাথ :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় লকডাউনে কর্মহারা শ্রমজীবী, দোকান কর্মচারী, নিন্ম আয়ের মানুষ, প্রতিবন্ধীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার পাঁচ শতাধিক নারী-পুরুষের মাঝে তুলে দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে মানবিক খাদ্য সহায়তা। করোনাকালীন প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে এই খাদ্য সহায়তা পেয়ে খুশি মনে বাড়ি ফিরেছেন তারা। প্রত্যেক পরিবারকে দেওয়া হয়েছে পাঁচ কেজি করে চাল, দুই কেজি আলু, এক কেজি করে চিনি, মসুর ডাল, লবণ ও এক লিটার সয়াবিন তেল।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) দুপুরে চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে মানবিক এই খাদ্যসহায়তা তুলে দেন কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ, কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ, করোনাকালীন অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. দিদারুল আলম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তানভীর হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপার মো. তফিকুল আলম, থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের, ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, এমপির ব্যক্তিগত সহকারী আমিন চৌধুরী প্রমূখ।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ জানান, করোনাকালীন সরকার ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধ তথা লকডাউন চলাকালে কর্মহারা ইজিবাইক (টমটম), রিক্সা, ভ্যানচালক, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি, প্রতিবন্ধী, পত্রিকা বিক্রেতা হকার, সাংবাদিক, তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠিসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মানবিক সহায়তা দেওয়ার কার্যক্রম চলে আসছিল। গত কয়েকদিন ধরে প্রায় দুই হাজার পরিবারকে দেওয়া হয়েছে খাদ্যসহায়তা। সর্বশেষ মঙ্গলবার দুপুরে পাঁচ শতাধিক কর্মহারা মানুষকে এই খাদ্যসহায়তা দেওয়া হয়েছে। তন্মধ্যে ১০০ জন প্রতিবন্ধী নারী-পুরুষ এবং ৩৩৩ তে ফোন করে সহায়তা চাওয়া ৫১ জন ব্যক্তিও রয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •