মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের সাতকানিয়া ও বাঁশখালী সীমান্তের লটমনি এলাকার একটি মাছের প্রজেক্ট থেকে দুজনের ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করেছে বাঁশখালী থানা পুলিশ।
বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সাধনপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড হালুয়াঘোনা লটমণি এলাকায় মাছ চাষের পুকুরে লাশ দু’টি ভাসমান অবস্থায় দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে লাশ দুটি উদ্ধার করে।

নিহতরা হলেন, সাতকানিয়া উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব গাটিয়াডেঙ্গা এলাকার আব্দুস সুবহানের ছেলে মোহাম্মদ শাহজাহান (২৮) ও একই এলাকার লোকমান হাকিমের ছেলে রায়হান উদ্দিন আকাশ (২২)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, লটমণি এলাকায় শাহজাহান দীর্ঘদিন ধরে একটি পুকুর ভাড়া নিয়ে মাছের চাষ করে আসছিলেন। পুকুরে মাছ ধরার জন্য গত দুইদিন ধরে বৈদ্যুতিক সেচ যন্ত্রের সাহায্যে পানি সেচের কাজ করছিলেন শাহজাহান ও রায়হান উদ্দিন। গত বুধবার রাতের কোনো এক সময় সেচ যন্ত্রটিতে বৈদ্যুতিক সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দুজনই জলাশয়ে পড়ে যান। বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় লোকজন মাছের প্রজেক্টে দুজনের লাশ ভাসতে দেখে জনপ্রতিনিধিদের খবর দেন। পরে জনপ্রতিনিধিরা বিষয়টি সাতকানিয়া থানা-পুলিশকে জানায়। পরে সাতকানিয়া থানার মাধ্যমে খবর পেয়ে বাঁশখালী থানা-পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে লাশ দুটি উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে বাঁশখালী রামদাশমুন্সির হাঁট পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এসআই মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম বলেন, ‘তারা দু’জনই মাছের প্রজেক্টে কাজ করেন। পানি সেচের মোটর চালু করতে গিয়ে তারা বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে সম্ভবত বুধবার রাতেই তারা নিহত হয়েছেন।’

বাঁশখালী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিউল কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিৎ করে বলেন, ‘ঘটনাস্থলে সাতকানীয়া থানার পুলিশও উপস্থিত হয়েছে। লাশ দু’টি তাদের পরিবার চাইলে দিয়ে দেওয়া হবে, অন্যতায় ময়না তদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হবে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •