প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) মহামারীতে আক্রান্ত পুরো বিশ্ব। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। মহামারী নিয়ন্ত্রণে চলছে সরকার ঘোষিত লকডাউন। অন্যদিকে ঘনিয়ে আসছে পবিত্র ঈদ উল আযহা’র দিনক্ষণ। এই সময় জমজমাট হয়ে উঠার কথা কোরবানির পশুর হাট। কিন্তু মহামারীর কারণে সংকিত খামারি ও কোরবানি দাতারা। এ সংকটাপন্ন অবস্থায় বরাবরের মতো খামারী ও ক্রেতাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে প্রাণিসম্পদ বিভাগ। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে সারাদেশে চালু করা হয়েছে অনলাইন কোরবানি পশুর হাট। সে ধারাবাহিকতায় টেকনাফ উপজেলার পশু খামারী ও ক্রেতাদের সুবিধার্থে উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের সার্বিক তত্ত্বাবধানে চালু করা হয়েছে “অনলাইন কোরবানির পশুর হাট, টেকনাফ, কক্সবাজার”। ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে চালু হওয়া এই হাট খামারী ও কোরবানি দাতাদের মধ্যে যোগসূত্র হিসেবে কাজ করবে। এই গ্রুপে এড হয়ে নিশ্চিন্তে কোরবানির পশু ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবেন খামারী ও ক্রেতারা। গ্রুপের লিংক- https://www.facebook.com/groups/226829852607115/

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ শওকত আলী জানান, “কভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে খামারী ও কোরবানি দাতাদের মধ্যে যোগসূত্র স্থাপন এবং ঝুকি এড়িয়ে পশু ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য টেকনাফ উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের উদ্যোগে অনলাইন কোরবানির পশুর হাটের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।”

উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ মুহিবুল্লাহ জানান, “‘অনলাইন কোরবানির পশুর হাট, টেকনাফ, কক্সবাজার’ ফেসবুক গ্রুপটি সার্বক্ষণিক তদারকি এবং আপডেট করা হচ্ছে।” তিনি টেকনাফ উপজেলার খামারী ও কোরবানি দাতাদের উক্ত গ্রুপে এড হয়ে নিশ্চিন্তে পশু ক্রয়-বিক্রয় করার আহ্বান জানান।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •